কিশোরীর সঙ্গে অনৈতিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকা নৌ-পুলিশ সদস্যকে থানায় হস্তান্তর

image

বাগেরহাটের রামপালে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীর সঙ্গে অনৈতিক মেলামেশার অভিযোগে নৌ-পুলিশের সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দাখিল হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয় ঘষিয়াখালী চ্যানেলের নৌ-পুলিশ ফাঁড়িকে কর্মরত মুত্তাকিন বিল্লাহ (৩২) নামের এক পুলিশ কনস্টেবলকে আটক করা হয়েছে। সে খুলনার তেরখাদা উপজেলার বারাসাত গ্রামের হাফেজ জামিল আহমেদের ছেলে। রামপাল থানা পুলিশ ও মেয়েটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, রামপাল উপজেলার কালিকাপ্রসাদ গ্রামের এবার এসএসসি পাস করা মেয়ে (১৬) কে রাস্তাঘাটে যাওয়া আসার পথে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকে মুক্তাকিন বিল্লাহ। এক পর্যায়ে ওই মেয়েটিকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়। এতে সে রাজি না হলে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয়। এরপর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে দৈহিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। এভাবে প্রায় ২ মাস ধরে ওই মেয়েটির সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক করে আসছিল। অবশেষে গত বৃহস্পতিবার রাত ১টার সময় মেয়েটির বাড়িতে অনৈতিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকা অবস্থায় স্থানীয় জনতা ওই পুলিশ সদস্যকে হাতেনাতে আটক করে স্থানীয় ভোজপাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের কাছে হস্তান্তর করে। তাৎক্ষণিকভাবে ইউপি চেয়ারম্যান রামপাল থানার ওসিকে অবহিত করেন এবং মুক্তাকিন কে থানায় হস্তান্তর করেন। পুলিশ মেয়েটির ডাক্তারী পরীক্ষা ও জবানবন্দী গ্রহণের জন্য হেফাজতে নেয়। বাগেরহাট সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মশিউর রহমান বলেন, দুপুরে কিশোরীর ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। নৌ পুলিশের সদস্য মুস্তকিনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।