নকল টিকিট দিয়ে ঘরমুখো অনুভূতির সঙ্গে প্রতারণা! : আটক দুই

image

ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের টিকিটের বিপুল চাহিদার সুযোগে নকল টিকিট বিক্রির সঙ্গে জড়িত প্রতারণা চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলো-তানভির ও হিমেল। সোমবার (৫ আগস্ট) দিবাগত রাতে কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে রেলওয়ে থানা (জিআরপি) পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করে। এসময় তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন ট্রেনের প্রায় ১৬টি নকল টিকিট উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা রেলওয়ে থানার (কমলাপুর) উপ-পরিদর্শক রুশো বণিক বলেন, ‘চলো যাই ডট কম’ নামে একটি ওয়েবসাইট ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতারণা চালিয়ে আসছিল তারা। আসন্ন ঈদে ঘরমুখো মানুষকে টার্গেট করে অভিনব প্রতারণার ফাঁদ পাতে। চক্রটি অনলাইনে বিভিন্ন রুটে ট্রেনের টিকিটের বিজ্ঞাপন দিয়ে আসছিল। গ্রাহকরা আগ্রহী হয়ে টিকিট কিনতে চাইলে টাকার বিনিময়ে সরবরাহ করতো নকল টিকিট। দেখতে অবিকল আসল টিকিটের মতো হওয়ায় যাত্রীরা বিষয়টি বুঝতে পারতেন না। তিনি বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার দিবাগত রাতে কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে নকল টিকিট বিক্রির ওই চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চক্রের মূলহোতা আহসান হাবীব পলাতক রয়েছেন। তাদের দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) সকাল পর্যন্ত কমলাপুরে পৃথক অভিযানে ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলো- রুবেল, হজরত আলী ও দুলাল মিয়া। তারা আসল টিকেট সরবরাহ করলেও অবৈধ পন্থায় বাড়তি দামে টিকেট বিক্রি করছিল। নকল টিকিট বিক্রয় এবং কালোবাজারির ঘটনায় সর্বমোট গ্রেফতার ৫ জনের বিরুদ্ধে পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে।