নারায়ণগঞ্জে আইসিইউতে ভর্তি করোনা রোগীর মৃত্যু

image

কোভিড ডেডিকেটেড নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি এক করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) দুপুর ১টার দিকে তিনি মারা যান।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, আনোয়ারুল হক (৬০) নামে ওই ব্যক্তি কোভিড-১৯ পজেটিভ হয়ে গত ৩ জুলাই হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি হন। তার অবস্থান অবনতি হওয়াতে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ দুপুরে মারা যান তিনি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ নিয়ে ১৪ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১২১ জন। আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫ হাজার ৪৫৭ জন।

নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. গৌতম রায় জানান, গত ৩ জুলাই করোনা আক্রান্ত আনোয়ারুল হক হাসপাতালে ভর্তি হন। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। ডায়েবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, কিডনিজনিত সমস্যাও ছিল তার।

তিনি জানান, এখন পর্যন্ত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৪ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এখনও ভর্তি আছেন ২৫ জন। তাদের মধ্যে তিনজন আইসিইউতে আছেন।

মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে সিটি কর্পোরেশনের কর্মীদের সহায়তায় মৃত ব্যক্তির দাফনের ব্যবস্থা করেন ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু। তিনি জানান, পশ্চিম দেওভোগ নিবাসী মৃত আনোয়ারুল হক নারায়ণগঞ্জ জেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম দেলোয়ারের ভগ্নিপতি। তাকে সদর উপজেলার কাশীপুর ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, করোনা রোগীকে নিয়ে মানুষের ভীতি কাটছে না। কেউ মারা গেলে এখনও তার আশেপাশে আসতে চান না স্বজনরা। এই মহামারীর সময়ে সকলকে মানবিক হওয়ার আহ্বান জানান কাউন্সিলর শওকত হাশেম।