নিহত রায়হানের শরিরে ১১১ আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে

image

সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানাধীন বন্দরবাজার ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদের (৩৪) দেহে ১১১টি আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। মরদেহের দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী- এসবের মধ্যে ৯৭টি লীলাফোল আঘাত ও ১৪টি ছিলো জখমের চিহ্ন। আঘাতগুলো লাঠি দ্বারাই করা হয়েছে।

সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগ সূত্র তথ্যগুলো নিশ্চিত করেছে। ফরেনসিক এই রিপোর্টটি পিবিআই’র কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

রিপোর্টের ভিত্তিতে জানা গেছে, রায়হানের শরীরে অতিরিক্ত আঘাতের কারণে দেহের ভেতর রগ ফেটে গিয়ে রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়। আঘাতে দেহের মাংস থেতলে যায়। রগ ফেটে গিয়ে আন্তঃদেহে রক্তক্ষরণ (ইন্টারনাল ব্লিডিং) হয়। আর অতিরিক্ত আঘাতে মুর্ছা যান রায়হান। আঘাত করার সময় রায়হানের স্টমাক ছিল খালি, স্টমাকে ছিল কেবল এসিডিটি লিকুইড।

গত রোববার (১১ অক্টোবর) ভোর রাতে নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার যুবক রায়হান আহমদকে পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতন করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদি হয়ে ১২ অক্টোবর কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর আকবরসহ ৪ পুলিশকে বরখাস্ত ও ৩ জনকে প্রত্যাহার করা হয়। ১৩ অক্টোবর বিকেল থেকে আকবর পলাতক রয়েছেন।

বিভিন্ন মহলের প্রশ্ন আর পরিবারের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এবং পুলিশ সদর দফতরের নির্দেশে মামলাটি পিবিআইতে স্থানান্তর হয়। তদন্তভার পাওয়ার পর পিবিআইর টিম ঘটনাস্থল বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ি, নগরের কাস্টঘর, নিহতের বাড়ি পরিদর্শন করে। গত বৃহস্পতিবার মরদেহ কবর থেকে তুলে দ্বিতীবার ময়না তদন্ত করে পিবিআই। ওইদিনই শেষে বিকেলে আবার আখালিয়া নবাবী মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে রায়হানের মরদেহ ফের দাফন করা হয়।

কোরআন অবমাননার অভিযোগে গণপিটুনিতে এক ব্যক্তির মৃত্যু

image

কিশোরগঞ্জে মাটিচাপা দেয়া স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানের লাশ উদ্ধার

image

ইরফান ও দুই সহযোগী রিমান্ডে

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম, তার সহযোগী জাহিদুল ইসলাম ও দীপুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

শুক্রবার থেকে শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা শুরু, বৌদ্ধ পল্লীতে চলছে উৎসবের আমেজ

image

ছুটি বেড়েছে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত

image

১০টি সরকারি হাইস্কুল স্থাপন প্রকল্প বাস্তবায়নে তুঘলকি কান্ড

ঢাকার নিকটবর্তী এলাকায় ১০টি নতুন সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্পের বাস্তবায়ন নিয়ে একের পর এক তুঘলকি কান্ড ঘটছে।

এএসআই রায়হানুলকে আদালতে ৭ দিনের জন্য রিমান্ডের আবেদন

image

ইয়াবা পাচারের মামলায় নারায়ণগঞ্জের সাবেক ওসি কারাগারে

image

এসআই আকবরকে ধরতে এডিসিদের নেতৃত্বে আলাদা তিনটি টিম গঠন এসএমপির

image