download

ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে ছাত্র পরিচয়ে বাড়িভাড়া নেয় জঙ্গিরা

চার জঙ্গির বিরুদ্ধে ৪ মামলা

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌরসভার উকিলপাড়া এলাকার জনৈক প্রকৌশলীর বাড়িটি ভাড়া নেয়ার ক্ষেত্রে জঙ্গিরা ফেক (ভুয়া) জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করেছিল। খালেকুজ্জামান নামে জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে ওই ব্যক্তি জঙ্গিদের একজনকে নিজের ছেলে অন্যজনকে ভাতিজা বলে পরিচয় দিয়েছিল। পরিচয় সঠিক যাচাই না করেই বাড়ির মালিকের ভায়রা ওষুধ ব্যবসায়ী আবদুল্লাহ আল মামুন মাসিক ২ হাজার টাকায় জঙ্গিদের কাছে চলতি মাসের ২ তারিখে বাড়ি ভাড়া দিয়েছিলেন। তারা বাড়িটি অস্ত্র, বিস্ফোরকের মজুদ গড়ে তুলে বাড়িটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলেছিল। এদিকে শুক্রবারের (২০ নভেম্বর) অভিযানে র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণকারী ৪ জঙ্গিকে পুলিশ আদালতে হাজির করে। আদালত থেকে তাদের জেলে পাঠায়। এর আগে র‌্যাব ১২ ডিএডি বাদী হয়ে অস্ত্র ও বিস্ফোরক, মাদক ও পুলিশ অ্যাসল্ট এবং সন্ত্রাস দমনের পৃথক আইনে ৪টি মামলা করেন।

র‌্যাব ১২-এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর গাফরুজজামান টেলিফোনে সংবাদকে জানান, র‌্যাবের পক্ষ থেকে বাদী হয়ে ৪টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। জঙ্গিদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মামলা র‌্যাব তদন্ত করবে কিনা এ বিষয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত আসেনি। তবে র‌্যাবের কাছে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাকায় এ মামলার তদন্তের জন্য র‌্যাবের পক্ষ থেকে আবেদন করা হতে পারে। তিনি আরও জানান, যে আস্তানায় অভিযান চালানো হয়েছে সে আস্তানায় জঙ্গিদের একটি গ্রুপ আসার কথা ছিল। অভিযানের কারণে ওই গ্রুপটি আস্তনায় আসেনি। ওই গ্রুপটিকে শনাক্ত করার জন্য ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে র‌্যাব। খুব শীঘ্রই ওই গ্রুপটিকে গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

এলাকাবাসী জানান, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডটি ভিআইপি পাড়া হিসেবে পরিচিত শাহজাতপুরবাসীর কাছে। এখানকার বাসিন্দাদের অধিকাংশই পেশায় আইনজীবী, শিক্ষক, প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার। অধিকাংশ ব্যক্তি এখানে জায়গা কিনে বাড়ি করলেও বেশিরভাগই থাকেন না। ছাত্রসহ বিভিন্ন জনের কাছে ভাড়া দিয়েছেন। আর সেই সুযোগ নিয়ে বগুড়ার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী সামছুল হক রাজা মিয়ার টিনসেড বাসাটি ছাত্র পরিচয়ে ভাড়া নিয়েছিল জঙ্গিরা। পুলিশের নির্দেশনা অনুযায়ী ভাড়াটিয়দের তথ্য ফরম পূরণের মাধ্যমে ভাড়া দেয়ার কথা থাকলেও জঙ্গিদের ভাড়া দেয়ার ক্ষেত্রে সে নিয়ম মানা হয়নি। পুলিশের পক্ষ থেকেও এ বিষয়ে কোন তদারকি ছিল না। থানার এক কিলোমিটারের মধ্যে বাসা ভাড়া নিয়ে জঙ্গিরা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তোলে নির্বিঘ্নে জঙ্গি প্রশিক্ষণ চালিয়ে আসলেও পুলিশ কেন সেই আস্তানার খোঁজ পায়নি এ নিয়েও উঠেছে নানা প্রশ্ন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, এক সময় ওই এলাকাটির নাম ছিলো শেরখালী। বিভিন্ন চাকরিজীবীরা বাড়ি করায় এলাকাটির নাম শেরখালী পাল্টে শ্যামলী পাড়া রাখা হয়। ঢাকার শ্যামলী এলাকার নামকরণে শ্যামলীপাড়া রাখা হলেও তা খুব পরিচিতি পায়নি। তবে ওই এলাকায় ১০ থেকে ১২ জন আইনজীবী বাড়ি করেন। এরপর আইনজীবীদের চেম্বার গড়ে ওঠে এলাকাটিতে। ধীরে ধীরে শেরখালী উকিলপাড়া হিসেবে পরিচিতি পায়। ওই এলাকায় সদ্য প্রয়াত আইন সচিবেরও বাড়ি রয়েছে। এছাড়া স্কুল শিক্ষক-প্রকৌশলী থেকে শুরু করে বিভিন্ন সরকারি চাকরিজীবীর বাড়ি রয়েছে। অনেকেই এলাকায় থাকলেও অধিকাংশ বাড়ির মালিক বহুতল ভবন অথবা টিনের ছাপড়া তৈরি করে ভাড়া দিচ্ছেন। উকিলপাড়া এলাকাটি পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের একটি অংশ। শেরখালী উকিলপাড়া ছাড়াও দাবারিয়া ও কান্দারপাড় এলাকা নিয়ে পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড। এখানকার ভোটার সংখ্যা ৬ হাজারের মতো। এরমধ্যে শেরখালী উকিলপাড়া এলাকায় ৩ হাজার ভোটার। এলাকাবাসীর ভাষ্য, এখানে বিভিন্ন ব্যক্তি এসে বিভিন্ন পরিচয়ে বছরের পর বছর ভাড়া আছে। শুক্রবার আটক হওয়া জঙ্গিরাও ছাত্র পরিচয়ে ভাড়া নিয়েছিল। এর আগে ওই বাড়িতে একাধিক পরিবার ভাড়া ছিল। ভাড়াটিয়াদের ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র রেখে ভাড়া দেয়া এবং তথ্য থানায় জমা দেয়ার বিধান থাকলেও বাড়ির মালিকরা তা মানছেন না। পুলিশের পক্ষ থেকেও এ বিষয়ে জোরালো কোন ভূমিকা কখনও নেয়া হয়নি। শুক্রবার জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়া এবং জঙ্গিরা গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে ওই এলাকায় বসবাসকারী অন্যরা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। বাড়ির মূল মালিকের ভায়রা ওষুধ ব্যবসায়ী আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, তার ভায়রা শামসুল হক রাজামিয়া ওই বাড়িটির মালিক। ১০ বছর আগে তিনি জায়গটি কিনে ভরাট করেন। এরপর সেখানে টিনসেড বাড়ি তৈরি করে ভাড়া দিয়ে আসছিলেন। তার ভায়ড়া চাকরির সুবাদে বগুড়ায় থাকার কারণে ভাড়া দেয়া ও ভাড়ার টাকা তোলার দায়িত্ব তাকে দেয়া হয়। তিনি শাহজাদপুর এলাকায় মসজিদ মার্কেটে ওষুধের ব্যবসা করেন।

আবদুল্লাহ আল মামুনের ভাষ্য, গত ২ নভেম্বর পাবনার বেড়া উপজেলার আল হেরা স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র পরিচয় নাইম ও সেলিম নামে ভাড়া নেয়ার জন্য আসে। খালেকুজ্জামান নামের এক ব্যক্তি নাইমকে নিজের ছেলে এবং সেলিমকে নিজের ভাতিজা পরিচয় দিয়ে বাড়িটি মাসিক ২ হাজার টাকা ভাড়া নেয়। ওই সময় খালেকুজ্জামান একটি আইডি কার্ড দেয়। কিন্তু তিনি সেটি আর থানায় জমা দেনটি বা নতুন ভাড়াটিয়া ওঠার তথ্য পুলিশকেও জানাননি। মামুন জানান, খালেকুজ্জামান নিজেকে অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক পরিচয় দেয় এবং পাবনা জেলার সাথিয়া উপজেলার বাসিন্দা বলে দাবি করে। ভাড়া নেয়ার সময় ১ মাসের টাকা অগ্রিম দেয়। ৩ নভেম্বর তারা বাসাটিতে ওঠেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, এর আগে উপজেলার বনগ্রাম গ্রামের হাবিবুর রহমান তার মেয়ে-জামাইয়ের বাড়িটি ভাড়া নেয়। ওই দম্পতি ২ মাস থাকার পর চলে যায়। এরপর এক ড্রাইভার দম্পতি ওই বাসায় ৭ থেকে ৮ মাস ভাড়া ছিলেন। তারা চলে যাওয়ার পর খালেকুজ্জামান নাইম ও সেলিমকে নিয়ে এসে বাড়িটি ভাড়া নেন। শুক্রবার ভোরে জঙ্গি আস্তানা ঘেরাও করার আগে র‌্যাবের সদস্যরা তার বাড়ি ঘেরাও করে। তিনি পাশের এলকা দাবারিয়ায় থাকেন। র‌্যাব সদস্যরা খালেকুজ্জামানের দেয়া আইডি কার্ডের ফটোকপি তার কাছ থেকে নিয়ে যান। এরপর তিনি জানতে পারেন তিনি যাদের ভাড়া দিয়েছেন তা আদৌ কোন ছাত্র নয় সবাই জঙ্গি গ্রুপের সদস্য।

শেরখালী উকিলপাড়ার বাসিন্দা সিরাজগঞ্জ জজ কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবদুল খালেক জানান, জঙ্গি আস্তানা কাদের ছত্রছায়ায় গড়ে ওঠেছে তা সঠিক তদন্তের মাধ্যমে খুঁজে বের করে দোষিদের আইনের আওতায় আন হোক।

শুক্রবার সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানা এলাকায় জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালায়। সেখানে অভিযান চালিয়ে জেএমবি সংগঠনের শীর্ষ সক্রিয় সদস্য পাবনার সাথিয়া উপজেলার দাড়ামুধা গ্রামের মোখলেসুর রহমানের ছেলে শামীম হোসেন ওরফে কিরণ (১৯), একই এলাকার আবু তালেবের ছেলে নাইমুল ইসলাম (২৫), দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার শশরাসাহাপাড়া গ্রামের মানিক হোসেনের ছেলে আতিউর রহমান (১৯) ও সাতক্ষীরা জেলার তালা থানার দক্ষিণ নলতা গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে আমিনুল ইসলাম শান্তকে (২০) আটক করে। অভিযান শেষে র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সারোয়ার সাংবাদিকদের জানান, শামীম হোসেন কিরণ রাজশাহী জেএমবির আঞ্চলিক কামান্ডার মাহমুদের সেকেন্ড ইন কমান্ড এবং পাবনা ও সিরাজগঞ্জ অঞ্চলের আঞ্চলিক নেতা। তারা জেএমবির সামরিক শাখার সদস্য। তারা দীর্ঘদিন ধরে জেএমবি কার্যক্রমে যুক্ত হয়ে সংগঠন পরিচালনায় চাঁদা সংগ্রহ করত বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। পরিচয় গোপন করে তাবলিগ জামায়াতের ছদ্মবেশে এসব প্রচার ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করত তারা। তিনি আরও জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাজশাহী শাহ মখদুম এলাকা থেকে জেএমবির উত্তরাঞ্চলের আঞ্চলিক কমান্ডার মাহমুদসহ চার জনকে গ্রেফতার হয়। তাদের তথ্য মতে শুক্রবার ভোর ৫টা থেকে শাহজাদপুরে ওই বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়। টানা সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার অভিযান শেষে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই চার জঙ্গি আত্মসমর্পণ করে। পরে র‌্যাবের বোম ডিজপোজাল দল ঢুকে দুটি পিস্তল, বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করে।

একনেকে তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপন প্রকল্পের অনুমোদন

আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে বাংলাদেশের জন্য নির্ভরযোগ্য ও কার্যকর আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো হিসেবে তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল সিস্টেম স্থাপন প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।

যাবজ্জীবন অর্থ ৩০ বছরের সাজা

যাবজ্জীবন অর্থ দন্ডিতের বাকি জীবন সাজা হলেও দন্ডবিধি ও ফৌজদারি কার্যবিধির আওতায় সাজা হয় ৩০ বছর।

দেশে নারীর প্রতি সহিংসতা ১০ মাসে বেড়েছে ২৪ শতাংশ

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত দেশে নারীর প্রতি সহিংসতা বেড়েছে ২৪ শতাংশ।

গোল্ডেন মনিরের অপকর্মে সহায়তা

স্বর্ণ চোরাচালানি হয়েও রাজনৈতিক সেল্টার নিয়ে বেপরোয়া হয়ে ওঠে মনিরুজ্জামান মনির ওরফে গোল্ডেন মনির।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে হেফাজতের বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান ৬০ সংগঠনের

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে হেফাজতে ইসলামের বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবীদের ৬০টি সংগঠন।

হলমার্কের ননফান্ডেড ১২শ’ কোটি টাকার অনিয়ম নিয়ে দুদকের ফের অনুসন্ধান শুরু

বহুল আলোচিত হলমার্ক গ্রুপের ননফান্ডেড ১২শ’ কোটি টাকা ঋণের দুর্নীতি নিয়ে ফের অনুসন্ধান শুরু করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সারাদেশে সহকারী রাজস্ব কর্মচারীদের কর্ম বিরতী

পানগাঁও কাস্টমস হাউসের যুগ্ম কমিশনার লুৎফুল কবিরকে বরখাস্ত ও দৃষ্টাস্ত মূলক শাস্তির দাবিতে সারাদেশে কর্ম বিরতী পালন করেছে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

করোনায় সাড়ে ১৮ হাজার পুলিশ আক্রান্ত : ৮০ জনের মৃত্যু

করোনা যুদ্ধে পুলিশ অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে লকডাউন কার্যকর, মাস্ক পরানো, অসহায়দের খাবার সরবরাহ, জনসচেতনতা সৃষ্টি পর্যন্ত করেছেন পুলিশ সদস্যরা। যা এখনও অব্যাহত আছে।

অব্যবস্থাপনার কারণে হানিফ ফ্লাইওভারে প্রতিদিন ২ কিলোমিটার যানজট

যাত্রাবাড়ী-গুলিস্তান মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার। দৈর্ঘ্য ১১ কিলোমিটার। তৈরি করা হয়েছিল যানজট নিরসনের জন্য।