রূপগঞ্জে মাদ্রাসা শিক্ষকের বেত্রাঘাতে শিশু হাসপাতালে

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার পাঁচাইখা দারুল উলুম হেফজ মাদরাসায় এক শিশুকে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। ১৬ এপ্রিল মঙ্গলবার রাতে এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। পাঁচাইখা দারুল উলুম হেফজ মাদরাসার সভাপতি আবদুর রহিম জানান, হেফজ বিভাগের শিক্ষক আড়াইহাজার বাইলা পাড়া এলাকার হাবিবুর রহমান এ মাদরাসায় বেশ কয়েকবার ছাত্রদের ওপর নির্যাতন চালায়। এমন অভিযোগের পর ঘরোয়া শালিসে পরিচালনা কমিটিকে আর কোন দিন শিশুদের নির্যাতন করবে এমন লিখিত দিয়ে বহাল থাকে। তার ছেলে হুজাইফা (১১) ওই মাদরাসায় হেফজ বিভাগে লেখাপড়া করে। মঙ্গলবার রাতে হেফজখানায় দুষ্টুমির অভিযোগ দিয়ে ওই মাদরাসা শিক্ষক হাবিবুর রহমান হুজাইফাকে বেঁধড়ক পেটায়। এ সময় হুজাইফাকে বেত দিয়ে মাথায় আঘাত করে। পরে জ্ঞান হারিয়ে ফেললে অন্য ছাত্রদের মাধ্যমে খবর পেয়ে হুজাইফার পরিবার তাকে উদ্ধার করে রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। এ ঘটনায় থানা পুলিশকে জানালে বা অভিযোগ করলে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয় অভিযুক্ত শিক্ষক হাবিবুর ও মাদরাসার বাবুর্চি নাসির উদ্দিন। শুধু তাই নয় ওস্তাদ আঘাত করলে কিছু হয়না বলে গ্রামবাসিকে ক্ষেপিয়ে তুলে ওই পক্ষ। এতে বিচার চেয়েও চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন নির্যাতনের শিকার হুজাইফার পরিবার।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক হাবিবুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে দাবি করেন। রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মাহমুদ হাসান বলেন, এ ধরনের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।