সচিবালয়ে ঈদের আমেজ

image

ঈদুল ফিতরের পাঁচদিন ছুটির পর ৯ জুন রোববার প্রথম কর্মদিবসে প্রশাসনের প্রাণকেন্দ্র সচিবালয়ে ছিল ঈদের আমেজ। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতির হার কম ছিল। প্রথম কর্মদিবসে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী ও সচিবরা সচিবালয়ে এসেই কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। ঈদের পর প্রথম কর্মদিবসে সচিবালয়ের বারান্দা, সিঁড়ি, লিফট, সর্বত্রই ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় চলে। একে অপরকে দেখা মাত্রই বুকে জড়িয়ে নেন। এতে ভেদাভেদ দেখা যায়নি মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল অফিসে এসে কক্ষে বসতে পারেননি। ঈদের ছুটিতে মন্ত্রীর কক্ষ বন্ধ ছিল পাঁচদিন। এ সময়ের মধ্যেই কক্ষে মরে পড়েছিল একটি ইঁদুর। তা পচে পুরো কক্ষেই দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল।

এক মাস রোজা পালন শেষে ৫ জুন বুধবার সারাদেশে মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর উদ্যাপিত হয়। মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার (৪, ৫ ও ৬ জুন) ছিল ঈদুল ফিতরের ছুটি। এরপর শুক্র ও শনিবার (৭ ও ৮ জুন) সাপ্তাহিক ছুটির দিন। দূর-দূরান্তে গ্রামের বাড়ি ঈদ পালন করতে যাওয়ায় কেউ কেউ রোববার অফিসে যোগ দেননি। তারা আরও দু’একদিন ছুটি নিয়েছেন। আবার কেউ কেউ গ্রাম থেকে ব্যাগ নিয়ে সোজা অফিসে চলে আসেন।

সচিবালয়ে দায়িত্ব পালনকারী বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কর্মীরা জানিয়েছেন, ঈদের পর প্রথম কর্মদিবসে সচিবালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি ৬০ শতাংশের মতো।

সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয়, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, ভূমি মন্ত্রণালয়সহ কয়েকটি মন্ত্রণালয় ঘুরে দেখা গেছে উপস্থিতি কম। কোন কোন কক্ষে চেয়ার টেবিল ফাঁকা। যারাও এসেছেন কাজে-কর্মে ছিল অনেকটাই ঢিলেঢালা ভাব। উপস্থিত কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা মূলত পারস্পরিক খোঁজ-খবর ও শুভেচ্ছা বিনিময়েই ব্যস্ত ছিলেন।

সকাল ১০টার দিকে ৪ নম্বর ভবনের দোতলায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ২০২ নম্বর কক্ষটিতে কাওকে পাওয়া যায়নি। যদিও এখানে চারজনের বসার ব্যবস্থা রয়েছে। খাদ্য মন্ত্রণালয়, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কক্ষে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি কম ছিল। লিফটগুলোর সামনে তেমন ভিড় ছিল না। ছিল না তদবিরকারীদের তৎপরতাও। তবে গাড়ি রাখার স্থানগুলো অন্য সময়ের মতো গাড়িতে পূর্ণ ছিল।

রোববার সচিবালয়ে এসে কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক, খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মণি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীসহ অন্য মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা সচিবালয়ে এসে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।