হাজার হাজার কেজি মা ইলিশ ও লাখ লাখ মিটার অবৈধ জাল জব্দ

image

সরকারী নিষেধ উপেক্ষা করে নদীতে মা ইলিশ শিকার করার অপরাধে ২৪ ঘন্টায় ২০৪ জেলেকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছে নৌ পুলিশের ভ্রাম্যমান আদালত। অভিযানে প্রায় ৫ কোটি টাকা মূল্যের ১৪ লাখ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল, ৬ লাখ টাকা মূল্যের প্রায় দের হাজার কেজি মা ইলিশ জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া জেলেদের ২০ টি নৌকাও জব্দ করা হয়েছে। এ নিয়ে এক সপ্তাহে ৫ শতাধিক জেলেকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা শতাধিক জেলে নৌকা এবং ২০ কোটি টাকা মূল্যের ৬০ লাখ মিটারের বেশি অবৈধ বিভিন্ন প্রকার জাল, ৫ হাজার কেজি মা ইলিশ জব্দ করেছে নৌ পুলিশ। নৌ পুলিশের পাশাপাশি নৌ বাহিনীর বিশেষ টিমও মা ইলিশ রক্ষায় নদীতে অবৈধভাবে মাছ শিকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে।

নৌ পুলিশের গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরিদা পারভীন জানান, গত ৯ অক্টোবর থেকে আগামী ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত জাতীয় সম্পদ মা ইলিশ রক্ষায় নদীতে সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষনা করে সরকার। সরকারের এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে ৭ অক্টোবর থেকে মা ইলিশ শিকার না করে ইলিশের প্রজননের জন্য নদীতে মাছ শিকারে না নামতে বিভিন্ন প্রচার কার্যক্রম শুরু করা হয় নৌ পুলিশের পক্ষ থেকে। ৯ অক্টোবর থেকে নৌ পুলিশের ৮ টি নৌ অঞ্চলে টিম ভাগ করে অভিযান শুরু করে নৌ পুলিশ। নৌ পুলিশের ডিআইজি মোঃ আতিকুল ইসলাম নিজে এ অভিযান মনিটরিং করছেন। গত ১ সপ্তাহ ধরে বিভিন্ন এলাকায় নিজে অভিযানে গিয়েছেন।

নৌ পুলিশ সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় (১৪ অক্টোবর থেকে ১৫ অক্টোবর সকাল পর্যন্ত) অবৈধভাবে মাছ শিকার করার কারণে ২০৪ জেলেকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। ২০ টি জেলে নৌকা আটক করা হয়েছে। ৪ কোটি টাকারও বেশি মূল্যের অবেধ জাল ধ্বংস করা হয়েছে। এ নিয়ে নৌ পুলিশের অভিযানে গত এক সপ্তাহে ৫ শতাধিক জেলেকে অবৈধভাবে নদীতে মাছ ধরা এবং মা ইলিশ শিকার করার অপরাধে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা, অর্থিক জরিমানা হয়েছে। কারো কারো বিরুদ্ধে মৎস আইনে নিয়মিত মামলা দায়ের করে থানায় হস্তান্তর করা হয়। অভিযানে এ পর্যন্ত শতাধিক জেলে নৌকা, বাল্কহেড, টেম্পো( ইঞ্জিন চালিত নৌকা) এবং অর্ধ শত কোটি টাকারও বেশি মূল্যের অবৈধ কারেন্টজালসহ বিভিন্ন জাল জব্দ করে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। জেলে নৌকাগুলো পানিতে তলিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে নৌ বাহিনী থেকে জানানো হয়েছে ইলিশের প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান-২০১৯ এর অংশ হিসেবে পটুয়াখালী ও বরিশালের বিভিন্ন নদ-নদী হতে ৩ লাখ ৫১ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ৬০ কেজি ইলিশ জব্দ করেছে নৌবাহিনী। নৌবাহিনী জাহাজ তিস্তা গত ১৩ ও ১৪ অক্টোবর বরিশাল জেলার লাহারহাট, পাতারহাট, শ্রীপুর, ভেদুরিয়া, উলানীয়া, বাবুগঞ্জ, হিজলা, মেহেন্দীগঞ্জ, ভাষানচর এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩ লাখ মিটার কারেন্ট জাল ও ৬০ কেজি ইলিশ জব্দ করেছে। এছাড়া, নৌবাহিনী জাহাজ এলসিভিপি-০১১ পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবালি, ধানখালী, পানপট্টি, পাটুয়া, গলাচিপা এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ০১ হাজার মিটার জগৎঘেরা জাল জব্দ করে। জব্দকৃত অবৈধ জাল স্থানীয় প্রশাসন এবং আটককৃত জেলেদের আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের উপস্থিতিতে আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয় এবং জব্দকৃত ইলিশ স্থানীয় এতিমখানায় দান করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ইলিশ প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় সরকার গত ০৯ অক্টোবর থেকে আগামী ৩০ অক্টোবর ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত সারাদেশে সব ধরণের ইলিশ মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে। বাংলাদেশ নৌবাহিনী সমুদ্র ও উপকূলীয় এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ব্যাপক অভিযান পরিচালনা করছে। ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী বাংলাদেশ নৌবাহিনী জাহাজসমূহের এ বিশেষ অভিযান আগামী ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে। এ অভিযান পরিচালনার ফলে দেশের নদ-নদীতে জাতীয় সম্পদ ইলিশের সংরক্ষণ ও প্রাচুর্য্য অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা যায়।