পোশাক খাতে প্রযুক্তির আগমন শ্রমিকদের উন্নত প্রশিক্ষণের তাগিদ

image

যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিল্প খাতে উন্নত প্রযুক্তির আগমনে উৎপাদনের পরিমান ও পণ্যের মান দুটিই বাড়ছে। তবে রোবটের মতো উচ্চ মান সম্পন্ন প্রযুক্তির আগমনের ফলে নিম্ন বা মধ্যম শ্রেণীর শ্রমিকদের চাকরি হারানোর আশঙ্কা সৃষ্টি হচ্ছে। বাংলাদেশেও কিছু কিছু উন্নতমানের পোশাক কারখানায় রোবটিক্স প্রযুক্তি যোগ হওয়া শুরু হয়েছে। এতে শঙ্কায় রয়েছে নিম্ন শ্রেণীর শ্রমিকরা। এই পরিস্থিতে উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে শ্রমিকদের পরিচিতি করানোর পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) একটি গবেষণায় জানা জানায়, কারখানায় যন্ত্র নির্ভরশীলতা বেড়ে যাওয়ার কারণে পোশাক খাতে নারী শ্রমিক কমছে। এর মধ্যে শ্রম আইনের ৬ ও ৭ গ্রেডের শ্রমিকই বেশি। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (বস্ত্র) তৌফিকুর রহমান বলেন, মন্ত্রণালয়ের গঠিত বস্ত্র সেল বিভিন্ন রুটিন দায়িত্বের পাশাপাশি তৈরি পোশাকের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার এবং জিএসপি সংক্রান্ত বিষয়ে কাজ করে। এ খাতের প্রযুক্তিনির্ভর উৎপাদনের বিষয়ে সরকারের আগ্রহ রয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় কর্মপন্থা, প্রভাব এবং করণীয় নিয়ে আমরা কাজ করছি।

রাজধানীর সাভারে ঢাকা ইপিজেডের সফটেক্স সোয়েটার কারখানার নিটিং বিভাগে প্রতি পালায় অন্তত ৭০০ শ্রমিক কাজ করত। এখন সেখানে এখন কাজ করে মাত্র ২২ জন। যন্ত্রে তৈরি সোয়েটারগুলো গোছানোই এখন তাদের মূল কাজ। এই কারখানায় এখন জার্মানি ও চীনের তৈরি বিভিন্ন ধরনের ১৯২টি স্বয়ংক্রিয় যন্ত্রে নিটিংয়ের কাজ হয়। আর এক সময় সাড়ে তিন হাজার শ্রমিক যৌথভাবে যা উৎপাদন করত এখন অর্ধেক শ্রমিক দিয়ে আধুনিক মেশিনে তার চেয়ে বেশি কাজ হয়।

শুধু সফটেক্স সোয়েটারই নয়, বৈশ্বিক বাণিজ্যের বাস্তবতা আর প্রয়োজনের প্রেক্ষাপটে এভাবেই বাংলাদেশে তৈরি পোশাক উৎপাদনের চিত্রটি বদলাতে শুরু করেছে। সহজভাবে বললে, শ্রমঘন এই খাতটি হয়ে উঠছে রোবটপ্রযুক্তি বা স্বয়ংক্রিয় যন্ত্রনির্ভর। এতে উৎপাদনশীলতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পণ্যের মান ভালো হচ্ছে, কমছে কারখানাগুলোর শ্রমিক নির্ভরতা। কমছে শ্রমিক অসন্তোষের ঝুঁকিও। তবে উল্টোদিকে প্রযুক্তি নির্ভরতার কারণে এই খাতের লাখ লাখ শ্রমিকের কর্মহীন হয়ে পড়ার শঙ্কাও তৈরি হচ্ছে। বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি খাত পোশাক শিল্পে সবচেয়ে বেশি শ্রমিকের কর্মসংস্থান। বর্তমানে প্রায় ৪০ লাখ শ্রমিক এই শিল্পে সরাসরি যুক্ত। যন্ত্র নির্ভরতার এই ‘ভালো-মন্দ’ দুটি চিত্রই পাওয়া যায় সফটেক্স সোয়েটারের কর্মকর্তা তাহজীবের কথায়।

বাংলাদেশে তুলনামূলক বড় পোশাক কারখানাগুলো রোবটপ্রযুক্তি স্থাপনে এগিয়ে আছে। গত তিন-চার বছর ধরে এই প্রবণতা বেশি দেখা যাচ্ছে। পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর পরিচালক সফটেক্স সোয়েটারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রেজওয়ান সেলিম নিজেকে অটোমেশনে যুক্ত হওয়া প্রথম সারির একজন মনে করেন। পোশাক খাতের পালাবদলের এই যাত্রায় অন্যদের উৎসাহও দেন তিনি। তিনি বলেন, সফটেক্স সোয়েটার অটোমেশনের পক্ষে পাইওনিয়র। আমি অন্যদেরকেও এজন্য উৎসাহিত করি। কারণ বর্তমান পরিস্থিতিতে বাজারে টিকে থাকতে হলে অটোমেশনে যুক্ত না হয়ে উপায় নেই। এখন থেকে চার বছর আগে আমি অটোমেশন শুরু করি। এখন আমার কারখানার ফ্লোরে শ্রমিক নেই বললেই চলে, অথচ দিন রাত উৎপদান চলছে। চার বছর আগে এই কারখানায় তিন হাজার ৬০০ শ্রমিক ছিল। এখন সেখানে মাত্র ১৪শ’ শ্রমিক দিয়েই সেই কাজ করে ফেলা যাচ্ছে। বরং কাজের মান, উৎপাদনশীলতা আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে।

এদিকে বকেয়া বেতন-ভাতা, চাকরিচ্যুতি, বন্ধ কারখানা খোলাসহ বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে পোশাক শ্রমিকদের প্রায়ই পথে নামতে হয়। কখনও কখনও পুলিশের সঙ্গে ঘটে যায় সংঘাত। শ্রমিক সংগঠনগুলোকেও বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা যায়। কিন্তু অটোমেশনের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়ার বিষয়টি অনেকটা নীরবেই মেনে নিয়েছেন তারা। রোবটপ্রযুক্তি ব্যবহারের কারণে শ্রমবাজার সংকুচিত হয়ে পড়া নিয়ে খুব বেশি মতামত দেন না শ্রমিক নেতারাও। বাস্তবতাটা তারও মানছেন তবে থেকে যাচ্ছে চাকরি হারানোর আশঙ্কা।

গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের কার্যকরি সভাপতি কাজী রুহুল আমিন বলেন, বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট ও সময়ের প্রয়োজনে শিল্পখাতে, বিশেষ করে পোশাক খাতে রোবটপ্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ছে। এর ফলে কারখানাভিত্তিক অনেক শ্রমক্ষেত্র কমে আসছে, শ্রমিকরা কাজ ছেড়ে অন্য পেশায় চলে যাচ্ছেন। বাস্তবতাকে যেভাবে মেনে নিতে হয়, বিষয়টি সেভাবেই সবাইকে মেনে নিতে হবে। আগে যেখানে আট ঘণ্টা কাজ করলেই চলত সেখানে এখন ১২ ঘণ্টা কাজ করানো হচ্ছে। তুলনামূলক পরিশ্রম কম হওয়ার কারণে অনেক সময় শ্রমিক সেটা মেনেও নিচ্ছে, এমনটি হওয়া উচিৎ নয়।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, উন্নত প্রযুক্তি, রোবটপ্রযুক্তির ব্যবহারের কারণে শ্রমিকদের কর্মহীন হওয়ার ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশও রয়েছে বলে মনে করেন আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা- আইএলওর কান্ট্রি ডিরেক্টর তোমো পুতেনিয়ান। তিনি বলেন, অটোমেশনের ফলে বাংলাদেশে লাখ লাখ অদক্ষ শ্রমিকের কর্মহীন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। পাশাপাশি উচ্চ দক্ষতাসম্পন্ন কর্মীদের কাজের ক্ষেত্রও বাড়বে। একটি উদীয়মান অর্থনীতির দেশ হিসেবে বাংলাদেশের বিশাল স্বল্পশিক্ষিত অদক্ষ শ্রমবাজার সত্যিই একটি ঝুঁকিতে রয়েছে। যদিও আইএলও মনুষ্য কায়িকশ্রম কমাতে প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনের ওপর গুরুত্ব দিয়ে থাকে, একই সঙ্গে প্রযুক্তির কারণে মানুষের কর্মহীন হওয়ার বিষয়টি নিয়েও উদ্বেগ দেখায়। প্রযুক্তির চাহিদা পূরণে মনুষ্য নিয়ন্ত্রিত প্রযুক্তির ওপর গুরুত্ব দেয় আইএলও।

বিজিএমইএ-এর সিনিয়র ডিপুটি সেক্রেটারি সৈয়দ আহমেদ নাজিরুল্লাহ বলেন, শ্রমিকদের প্রশিক্ষিত করার জন্য শতাধিক প্রশিক্ষণকেন্দ্র আছে। এগুলোতে তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মপোযোগী করে গড়ে তোলা হয়। আর দক্ষ কর্মীর চাহিদা রয়েছেই। এতে এই খাতে যে প্রযুক্তি যোগ হবে তা মানুষের হাতেই পরিচালিত হবে। তাই যতই প্রযুক্তিই যোগ হোক না কেন শ্রমিকরা যদি দক্ষ হয় তাহলে তাদের চাকরি হারাবে না। কারণ এই খাতে অনেক বিদেশি কাজ করে। দেশে দক্ষ কর্মী পেলে তাদের বেশি বেতন নিয়ে রাখব না আমরা। অটোমেশনের ফলে কোথাও শ্রমিক কাজ হারালে তারা নতুন কারখানায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ পায়।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) থেকে প্রকাশিত পণ্য রপ্তানি আয়ের হালনাগাদ তথ্যানুযায়ী, গত অর্থবছরেও পোশাক রপ্তানিতে আয় ৩০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে তৈরি পোশাক খাতের রপ্তানি আয় এসেছে ৩ হাজার ৪১৩ কোটি ৩২ লাখ ডলার যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৪ দশমিক ৪২ শতাংশ বেশি। গত অর্থবছরে এ খাতে রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩ হাজার ২৬৮ কোটি ৯০ লাখ ডলার। এ ছাড়া আগের অর্থবছরের তুলনায় রপ্তানিতে এ বছর ১১ দশমিক ৪৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরের পোশাক খাতে রপ্তানি আয় ছিল ৩ হাজার ৬১ কোটি ৪৭ লাখ ডলার।

মূশক আদায়ের লক্ষ্যে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বসানো হবে ইএফডি

image

বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ সুবিধায় বিদেশ থেকে টাকা আসবে গ্রাহকের মোবাইল ফোনে

image

বাংলাদেশ সফল আর্থিক অন্তর্ভুক্তির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত

image

ক্রেডিট কার্ডে লেনদেনে ভোগান্তির অভিযোগ গ্রাহকদের

image

‘অসাধু’ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাসহ পিয়াজের বাজার ‘অতি দ্রুত’ স্বাভাবিক করার উদ্যোগ গ্রহন

image

টেকসই আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে পানির মূল্য বোঝা গুরুত্বপূর্ণ

image

মানিলন্ডারিং প্রতিরোধে ১১ কৌশলে নেয়া হবে ১৩৭টি পদক্ষেপ

image

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১ লাখ ২৫ হাজার পিস কম্বল প্রদান আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংকের

image

গ্রামে ঋণ দিতে চায় না ব্যাংকগুলো

image