বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে এসএমই মেলায়

image

এসএমই মেলায় শাড়ি ও চাদরের স্টলে পণ্য দেখছেন ক্রেতারা

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চলছে এসএমই পণ্য মেলা-২০২০। এসএমই ফাউন্ডেশন আয়োজিত এই মেলায় সারা দেশের উদ্যোক্তা বা পণ্য বিক্রয় ও প্রদর্শনী করছে। গতবারের তুলনায় এবার মেলায় পণ্য সামগ্রী বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানান মেলায় অংশগ্রহণকারীরা।

গত ৪ মার্চ অষ্টমবারের মতো ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণে এসএমই পণ্য মেলা ২০২০ শুর হয়। আগামী ১৩ মার্চ পর্যন্ত চলবে এমেলা। গত বছর এসএমই পণ্য মেলা ২০১৯- এর চেয়ে এবারের সার্বিক ব্যবস্থা ও সুযোগ-সুবিধা ভালো থাকার কারণে মেলায় পণ্য সামগ্রী বেশি হচ্ছে। মেলা ঘুরে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের উদ্যোক্তারা অংশ নিয়েছেন মেলায়। যার বেশির ভাগই নারী উদ্যোক্তা। তারা বুটিক ও বাটিকসহ গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী সব পণ্য মেলায় এনেছেন। এছাড়া রয়েছে খাদ্য ও কৃষিজাত পণ্য, চামড়াজাত সামগ্রী, ইলেক্ট্রিক্যাল সামগ্রী, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য, আইটি পণ্য, প্লাস্টিক ও সিনথেটিক পণ্য, হস্ত শিল্প, ডিজাইন ও ফ্যাশনওয়্যারসহ বিভিন্ন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প পণ্য।

টুইন ট্রিটের উদ্যোক্তা ডিজাইনার সনিয়া সুলতানা জানান, গতবারের তুলনায় এবারের মেলায় বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে। মেলা শেষ হওয়া পর্যন্ত বিক্রির যে টার্গেট তা বিক্রি হবে বলে তিনি জানান। দিন যত যাচ্ছে দর্শনার্র্থী ততই বাড়ছে। দর্শনার্র্থী বাড়ার ফলে মেলা খুব আনন্দঘন পরিবেশ সৃষ্টি হচ্ছে। তৃপ্তি ফ্যাশনের উদ্যেক্তা তৈরি করে পাট ও পাটজাত পণ্য। শারমিন আফরোজা বলেন, তার স্টলে রয়েছে পাটের তৈরি ব্যাগ, শপিং ব্যাগ, ওয়াই ব্যাগ, গ্রোসারি ব্যাগ, হ্যান্ডিক্রাফট ইত্যাদি। তিনি ঢাকা শহরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পণ্য সরবরাহ করে থাকেন। এছাড়া অনলাইনে পণ্য বিক্রি করে থাকেন।

ফ্যাশন হাউজের উদ্যোক্তা শারমিন মুনিরা বলেন, গত ৫ বছর যাবত এখানে আমাদের পণ্য বিক্রয় ও প্রদর্শনী করছি। চট, বাঁশ ও কনফ্লায়ারসহ বিভিন্ন কাঁচামাল দিয়ে তৈরি হস্তশিল্পের গৃহ সজ্জার ননা সমগ্রী তৈরি করে থাকি। এছাড়া বিভিন্ন সেলাই ও নকশা করে নানান সৌখিন পণ্য যেমন- ব্যাগ, ম্যাট, কলমদানী, পাপোশ ইত্যাদি ছাড়াও ব্লক-বাটিকসহ নকশী কাঁথা, অ্যামবোটারের ননা ডিজাইন, শাড়ি, বিছানার চাদর, কুশনকভার রয়েছে। ফাইন ফয়ার ক্রেফটের উদ্যোক্তা বলেন, আমরা চামড়াজাত পণ্যের সরবরাহ করে থাকি। চামড়াজাত দ্বারা হ্যান্ডব্যাগ, সাইডব্যাগ, মানিব্যাগ, বেল্ট, টিস্যু বক্স, গিফট বক্স, ফুলদানি, পাসপোর্ট হোল্ডার, ফটোফ্রেম এমনকি সোফার কুশন কভারও তৈরি করে থাকি। এর আগে বুধবার সকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে (কেআইবি) এক অনুষ্ঠানে মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবারের মেলায় সারাদেশের ২৯৬টি এসএমই উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানের ৩০৯টি স্টল রয়েছে। উদ্যোক্তাদের মধ্যে ১৯৫ জন নারী ও ১০১ জন পুরুষ উদ্যোক্তা। এবারের মেলায় উদ্যোক্তাদের ৬৬ শতাংশই নারী।