সপ্তাহজুড়ে ফের পতন

১৭শ’ কোটি টাকা বাজার মূলধন হারিয়েছে শেয়ারবাজার

image

আগের সপ্তাহের মতো বিদায়ী সপ্তাহেও পতনে শেষ হয়েছে উভয় শেয়ারবাজারের লেনদেন। সপ্তাহটিতে শেয়ারবাজারের প্রধান প্রধান সূচক কমেছে। একই সঙ্গে কমেছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। এছাড়া ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) টাকার পরিমাণে লেনদেনও কমেছে। আর সপ্তাহটিতে শেয়ারবাজার মূলধন হারিয়েছে ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, চলতি সপ্তাহে উভয় শেয়ারবাজার মিলে মূলধন ১ হাজার ৭২৪ কোটি ৩০ লাখ ৭৯ হাজার টাকা হারিয়েছে। এর মধ্যে ডিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬৭৪ কোটি ৫ লাখ ৬২ হাজার টাকায়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯৮ হাজার ৫৫১ কোটি ৯৭ লাখ ৫৩ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে বাজার মূলধন ১ হাজার ১২২ কোটি ৮ লাখ ৯ হাজার টাকা বা ০.২৮ শতাংশ হারিয়েছে। আর সিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৩০ হাজার ৩ কোটি ৩৫ লাখ ৬০ হাজার টাকায়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিব লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ২৯ হাজার ৪০১ কোটি ১২ লাখ ৯০ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে বাজার মূলধন হারিয়েছে ৬০২ কোটি ২২ লাখ ৭০ টাকা। বিদায়ী সপ্তাহে ৫ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ২ হাজার ৩৫৮ কোটি ২৪ লাখ ৫৫ হাজার ৮২৭ টাকার লেনদেন হয়েছে। যা আগের সপ্তাহ থেকে ১ হাজার ২৪৬ কোটি ৭২ লাখ ৩৪ হাজার ৭০২ টাকা বা ২৭.০৭ শতাংশ কম হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৪ হাজার ৬০৪ কোটি ৯৬ লাখ ৯০ হাজার ৫২৯ টাকার। ডিএসইতে বিদায়ী সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছে ৬৭১ কোটি ৬৪ লাখ ৯১ হাজার ১৬৫ টাকার। আগের সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছিল ৯২০ কোটি ৯৯ লাখ ৩৮ হাজার ১০৬ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে গড় লেনদেন ২৪৯ কোটি ৩৪ লাখ ৪৬ হাজার ৯৪১ টাকা কম হয়েছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪৪.৬৭ পয়েন্ট বা ০.৯১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৮৭২.৩০ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৪.১৭ পয়েন্ট বা ০.৩৮ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১.০৮ পয়েন্ট বা ০.০৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১১২.৯৭ পয়েন্টে এবং ১৬৭০.৪৫ পয়েন্টে। বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৫৯টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৮টির বা ১৮.৯৪ শতাংশের, কমেছে ২৬২টির বা ৭২.৯৮ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির বা ৮.০৭ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১১৪ কোটি ৯০ লাখ ৯০ হাজার ৯২৬ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১৪৯ কোটি ৫ লাখ ৩২ হাজার ০০১ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ৩৪ কোটি ১৪ লাখ ৪১ হাজার ৭৫ টাকা বা ২২.৯০ শতাংশ কমেছে।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৪৬.১১ পয়েন্ট বা ১.০৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৮৮৩.৩৯ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ৮৫.৬২ পয়েন্ট বা ১.০১ শতাংশ, সিএসই-৩০ সূচক ৪৪.৮৫ পয়েন্ট বা ০.৩৮ শতাংশ, সিএসই-৫০ সূচক ৩.২৪ পয়েন্ট বা ০.৩২ শতাংশ এবং সিএসআই ৮.১১ পয়েন্ট বা ০.৯০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৮ হাজার ৩৩৭.৭৫ পয়েন্টে, ১১ হাজার ৫৭৩.০৯ পয়েন্টে, ৯৯৯.০৯ পয়েন্টে এবং ৮৯৫.৯৭ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩১১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৫৮টির বা ১৮.৬৪ শতাংশের দর বেড়েছে, ২২০টির বা ৭০.৭৩ শতাংশের কমেছে এবং ৩৩টির বা ১০.৪১ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

৪৩টি নতুন পণ্যকে বাধ্যতামূলক মান সনদে আনবে বিএসটিআই

image

মাংস আমদানি বন্ধে সরকারের কাছে ১০ দফা দাবি

image

শীর্ষ ১০টি কোম্পানির ৯টিই বীমা খাতের

image

সপ্তাহজুড়ে ১১ কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা

সপ্তাহজুড়ে ডিভিডেন্ড (লভ্যাংশ) ঘোষণা করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১১ কোম্পানি।

সফল নারী ফ্রিল্যান্সারদের সম্মাননা প্রদান

বাংলাদেশের নারী ফ্রিল্যান্সারদের মধ্য থেকে ৫ জনকে ‘সফল নারী ফ্রিল্যান্সার সম্মাননা ২০২০’ প্রদান করলো দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ‘শিখবে সবাই’।

করোনায় আমদানি বাণিজ্য কমেছে

image

করের আওতা বৃদ্ধিতে মরিয়া এনবিআর

image

বাংলাদেশেই উৎপাদিত হচ্ছে বিশ্বমানের সিরামিক পণ্য

image

৪ হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন হারিয়েছে শেয়ারবাজার

image