বশেমুরপ্রবি উপাচার্যের পদত্যাগ দাবী জবি প্রগতিশীল ছাত্রজোটের

image

গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপর উপাচার্যের পেটোয়া বাহিনীর হামলার প্রতিবাদ ও উপাচার্য নাসিরুদ্দিনের পদত্যাগ দাবিতে মানববন্ধন এবং প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।

২২ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্য চত্বরের সামনে মানববন্ধন শুরু হয়। এর সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সদস্য আসমানী আশা।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের দপ্তর সম্পাদক খায়রুল হাসান জাহিন বলেন, সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের চরিত্র একই রকম । জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ নির্বাচন (জকসু) এর গঠনতন্ত্র ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রণয়ন করার কথা থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ব্যর্থ হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য়, ৪র্থ শ্রেণীর কর্মকর্তাদের নির্বাচন হলে ও ছাত্র সংসদ নির্বাচন হয় না। সকল বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর প্রশাসনের চরিত্র স্বৈরতান্ত্রিক ভাবে রুপধারণ করেছে। অনিয়ম, উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা ভাগাভাগিসহ বিভিন্ন অপকর্ম সংগঠিত হয় যা যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্যে ন্যাক্কারজনক ঘটনা । এসময় তিনি, ঢাবি উপাচার্যকে চিরকুট ভিসি, বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যকে বহিষ্কার ভিসি, জাবি উপাচার্যকে সেলামি ভিসি নামে আখ্যায়িত করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্নীতি, অনিয়মের বিরুদ্ধে আন্দোলনকে সমর্থন জানান।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, জবি সংসদের সভাপতি প্রসেনজিৎ সরকার বলেন, বশেমুরবিপ্রবিতে একজন শিক্ষার্থীকে মতামত প্রকাশের স্বাধীনতা না দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অন্যায়ভাবে বহিষ্কার করা একটা নিয়ম বহির্ভূত কাজ। একজ উপাচার্যের মুখে ‘জানোয়ার’ বলে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলার মাধ্যমে বুঝা যায় উনি কতটুকু সংস্কৃতি লালন করেন। উপাচার্যের পেটোয়া বাহিনী দিয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করানো একটি ঘৃণিত কাজ বলে, দোষীদের শাস্তির দাবি করেন।

তিনি আরো বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) এর শিক্ষক মাইদুল ইসলামকে শিক্ষা ছুটি না দেওয়া যা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষকের নৈতিক অধিকার হনন করে। দলীয়ভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগের ফলে আজ বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে অনিয়ম ও নৈরাজ্যের মহোৎসব লেগেছে।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন প্রগতিশীল ছাত্র জোটের নেতৃবৃন্দ। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড নিয়ে উপস্থিত ছিলেন।