কাঁচা মাছ-মাংসের সঙ্গে ফ্রিজের একই চেম্বারে রান্না করা খাবার

image

নোংরা অস্বাস্থ্যকর রান্নাঘর। বিক্রির জন্য রাখা হয়েছে পচা-বাসি ইফতার। ফ্রিজে কাঁচা মাছ-মাংসের সঙ্গে সংরক্ষণ করা হচ্ছে রান্না করা খাবার, যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এসব অপরাধে রাজধানীর তিনটি রেস্টুরেন্টকে এক লাখ টাকা করে মোট তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানগুলো সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়। রেস্টুরেন্টগুলো হলো- ক্যাফে ধানমন্ডি, সুচিলি রেস্টুরেন্ট ও বিয়েবাড়ি রেস্তোরাঁ।

রমজান উপলক্ষে ২৩ মে বৃহস্পতিবার ধানমন্ডি এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে এ জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অভিযান পরিচালনা করেন ঢাকা জেলা অফিসের সহকারী পরিচালক আবদুল জব্বার মন্ডল ও ইন্দ্রানী রায়। আবদুল জব্বার মন্ডল বলেন, ক্যাফে ধানমন্ডি, সুচিলি রেস্টুরেন্ট, বিয়েবাড়ি রেস্তোরাঁ এই তিনটি রেস্টুরেন্টের বাইরে খুব চকচকে। কিন্তু ভেতরের নোংরা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। অস্বাস্থ্যকর উপায়ে খাবার তৈরি করছে। বিক্রির জন্য রেখে দিয়েছে বিপুল পরিমাণ পচা ও বাসি ইফতার, যার ওপর ফাংগাস পড়েছে।

এছাড়া ফ্রিজে একসঙ্গে কাঁচা মাছ-মাংস সংরক্ষণ করে রেখেছে, যা ভোক্তা আইন পরিপন্থী। এসব অপরাধে প্রতিষ্ঠান তিনটিকে এক লাখ টাকা করে মোট তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠান তিনটিকে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তাদের অধিদফতরে এসে এসব অনিয়মের কারণ ব্যাখ্যা করতে বলা হয়েছে। তারা যদি যথাযথ কারণ ব্যাখ্যা করতে না পারে তাহলে তাদের প্রতিষ্ঠান স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়া হবে। এছাড়া একই এলাকার লাইলাতি রেস্টুরেন্ট ও পিন্টু মিয়ার ইফতারিকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। অভিযানে সার্বিক সহযোগিতা করে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)-১ এর সদস্যরা।