টেলিভিশন বিস্ফোরিত হয়ে স্বামী নিহত ও স্ত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক

image

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বিএনপিবাজার এলাকায় একটি বাসায় টেলিভিশন বিস্ফোরণের পর সৃষ্ট আগুনে দগ্ধ হয়ে মুক্তার হোসেন (৩৮) নিহত হয়েছেন। ১৮ মে শনিবার মধ্যরাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) ও হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীনে তার মৃত্যূ হয়। এই ঘটনায় দগ্ধ স্ত্রী সালমা বেগম (২৮) চিকিৎসাধীন।

ঢামেক হাসপাতাল সূত্র জানায়, ১৭ মে বৃহস্পতিবার বিকেলে আগারগাঁও বিএনপিবাজারের সংলগ্ন বাসায় টেলিভিশন দেখছিলেন মুক্তার ও সালমা। ওই সময় তাদের ৬ বছরের ছেলে শাফিন বাসার বাইরে ছিল। টিভি দেখার একপর্যায়ে হঠাৎ করে বিকট শব্দ হয়ে টেলিভিশনটি বিস্ফোরিত হয়ে আগুন ধরে যায়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই আগুন তাদের শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। পরে আশপাশের লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করালে শনিবার রাতে চিকিৎসাধীনে মুক্তারের মৃত্যু হয়।

মুক্তার ও সালমার বাড়ি সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার চরশশমপুর গ্রামে। ঢাকায় মুক্তারের ওষুধের দোকান ছিল।

ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিট সূত্রে জানা গেছে, মুক্তারের শরীরের ৯৭ শতাংশ ও স্ত্রী সালমার ৯৫ শতাংশ পুড়ে যায়।