বেপরোয়া বাস এবার প্রাণ নিল নারী ও গায়কের

image

নিহত নারী কর্মকর্তা ফারহানাজের স্বজনদের আহাজারি (ইনসেটে ফারহানাজ)-সংবাদ

রাজধানীর বাংলামটরে ফুটপাতে দাঁড়িয়ে থাকা নারীকে চাপা দিয়ে পা বিচ্ছিন্ন করার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে এবার মহাখালী ও উত্তরায় পৃথক দুর্ঘটনায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের নারী কর্মকর্তা ও সংগীতশিল্পীসহ দু’জনের প্রাণ কেড়ে নিল বেপরোয়া বাস। বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯ মহাখালীতে ফারহানাজ ও ১১টায় বেপরোয়া বাস উত্তরায় সংগীত পরিচালক ও শিল্পী পারভেজ রব সড়ক দুর্ঘটনার নামে ‘হত্যাকা-ের’ শিকার হন। মাত্র ২ ঘণ্টার ব্যবধানে ফুটপাতে গিয়ে দু’জনকে চাপা দিয়ে ‘হত্যা’র ঘটনায় প্রশ্ন, তাহলে কি ফুটপাতও এখন নিরাপদ নয়? এতদিন সড়কে বেপরোয়া থাকলেও বাস-ট্রাক এখন ফুটপাতে উঠে পথচারীদের মারছে। বৃহস্পতিবারের ওই দুই ঘটনায় বাসচালকদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় স্বামী নাজমুল হাসানের মোটরসাইকেলে সকাল মহাখালী আসেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ফারহানাজ। বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি আমতলীর মাঝামাঝি মহাখালী ওড়াল সড়কের পাশে রাস্তা পার হয়ে ফুটপাতে উঠছিলেন তিনি। ঠিক তখনই দ্রুতগতিতে আসছিল একটি বাস। ক্যান্টনমেন্ট মিনিবাস সার্ভিসের বেপরোয়া গতির ফুটপাথে থাকা বিদ্যুতের দুটি খুঁটিতে ধাক্কা দিয়ে ফারহানাজকে চাপা দেয়। বাসের ধাক্কায় ফারহানাজ পড়ে গিয়ে নিজেকে রক্ষা করতে পারেননি। রক্তাক্ত অবস্থায় ফারহানাজকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে বাসের চালক পালিয়েছে। তবে বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তার গ্রামের বাড়ি ধামরাই। ঢাকায় মিরপুরের মনিপুরে থাকতেন তিনি।

ফারহানাজের মামা শফিকুল ইসলাম জানান, একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রশাসনিক কর্মকর্তা ছিলেন ফারহানাজ। চার বছর আগে বিয়ে হয় পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা নাজমুল হাসানের সঙ্গে। রাজধানীর মিরপুরের মনিপুর এলাকায় থাকতেন তিনি। ফারহানাজ-নাজমুলের সংসারে রয়েছে দেড় বছর বয়সী মেয়ে তাহরিন হাসান ইশরা। ঘটনাস্থল থেকে বাসটিকে জব্দ করে বনানী পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে।

বনানী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আফজাল হোসেন বলেন, দ্রুতগতিতে ফুটপাতে ধাক্কা দেয়ায় বাসটির সামনের বামপাশের নিচের অংশ চ্যাপ্টা হয়ে গেছে। এ ঘটনায় ফারহানাজের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে। বাসচালককে ধরতে অভিযান চলছে।

এদিকে সকাল ১১টায় ফুটপাতে দাঁড়িয়ে বাসে ওঠার সময় বেপরোয়া গতিতে পেছন থেকে আসা আরেকটি বাস কণ্ঠশিল্পী ও সংগীত পরিচালক পারভেজ রবকে চাপা দেয়। গুরুত্বর অবস্থায় তাকে প্রথমে পঙ্গু হাসপাতাল এবং পরে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। বৃহস্পতিবার একটি বেসরকারি হাসপাতালের সামনে এ নির্মম ঘটনা ঘটে।

তুরাগ থানার ওসি নুরুল মোত্তাকিন জানান, বৃহস্পতিবার সকালে তুরাগের ইস্ট ওয়েস্ট হাসপাতালের সামনে বাসে ওঠার সময় আরেকটি বাস সংগীত পরিচালক পারভেজ রবকে চাপা দেয়। পারভেজ রবকে চাপা দেয়া ভিক্টর ক্ল্যাসিক পরিবহনের (ঢাকা-মেট্রো-ব-১২-০৯৬৩) বাসটি জব্দ করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ওই বাসের চালক ও হেলপার পলাতক। তাদের ধরতে অভিযান চলছে।