রাজু ভাস্কর্যের মুখে কালো কাপড়

http://thesangbad.net/images/2020/January/07Jan20/news/rape-react-1.jpg

কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদ এবং বিচারের দাবিতে মঙ্গলবারও (৭ জানুয়ারি) ক্যাম্পাস বিক্ষোভে উত্তাল ছিল। মুখে কালো কাপড়, হাতে কালো পতাকা নিয়ে ধর্ষণের প্রতিবাদ আর ঘৃণা জানাতে রাস্তায় নেমে আসে ঢাবি শিক্ষার্থীরা। টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের মুখে কালো কাপড় বেধেও প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা। মুখে কালো কাপড় বেধে প্রতিবাদ ছাড়াও মিছিল, মানববন্ধন, সমাবেশ, স্মারকলিপি পেশ ও প্রতিবাদী চিত্র অঙ্কনসহ নানা কর্মসূচি পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীসহ ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সবগুলো ছাত্রসংগঠনসহ সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের এই প্রতিবাদে সাধারণ শিক্ষার্থীদের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখা গেছে। ৪৮ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও ধর্ষককে গ্রেফতার করতে না পারায় শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। তাদের অভিযোগ, দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি এমন ঘটনার জন্য দায়ী। তারা এই ধরণের পুনরাবৃত্তি চান না। শিক্ষার্থীরা এই ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে।

এদিকে, ধর্ষকের অবিলম্বে গ্রেফতারসহ চার দাবিতে অনশন অব্যাহত রেখেছেন ঢাবির চারজন শিক্ষার্থী। শিক্ষার্থী ধর্ষণের প্রতিবাদ ও ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে টিএসসি থেকে কুর্মিটোলা পর্যন্ত এক গণপদযাত্রার ঘোষণা দিয়েছে যৌন নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীজোট। ধর্ষণকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (বিসিএল)। এছাড়া, ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদে ধর্ষকের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং থিয়েটার এন্ড পারফরমেন্স স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরা। ধর্ষণের বিরুদ্ধে মৌন মিছিল করেছে বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল আর সমাবেশের মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগ, ২০১৪-১৫ ও ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা।

অন্যদিকে, ভুক্তভোগী ছাত্রীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দেখতে গিয়ে দ্রুত মামলা নিষ্পত্তির আহ্বান জানিয়েছেন মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাসিমা বেগম। ধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থীর শারিরীক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক একেএম নাসির উদ্দিন। তিনি বলেন, ডাক্তাররা অনুমতি দিলে দুয়েকদিনের মধ্যে তাকে ছেড়ে দেয়া যাবে। তার মানসিক শক্তি ধীরে ধীরে বাড়ছে।

http://thesangbad.net/images/2020/January/07Jan20/news/rape-react-2.jpg

ছাত্রলীগের প্রতিবাদী চিত্র অঙ্কন:

শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে প্রতিবাদী আলপনা এঁকেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। ‘আমি বাংলাদেশ, আমি লজ্জিত’ প্রতিপাদ্যে আলপনা অঙ্কন করে তারা ধর্ষণের প্রতিবাদ করেছে। পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী বেলা এগারোটায় মধুর ক্যান্টিন থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ঢাবি ছাত্রলীগ। মিছিলটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাজু ভাস্কর্যে এসে শেষ হয়। সেখানে তারা মানববন্ধন করে। এসময় তারা ধর্ষণের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়। এরপর ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের উদ্যোগে চারুকলা অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা বেলা ১২টা থেকে টিএসসির রোকেয়া হলের সামনে প্রতিবাদী আলপনা আঁকে। পরবর্তীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ এতে অংশ নেয়। এই বিষয়ে ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস বলেন, ধর্ষকদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে শাস্তির দাবিতে এ আলপনা আঁকা হচ্ছে। ধর্ষকদের বিরুদ্ধে ঢাবি ছাত্রলীগ যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। তাদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত ঢাবি ছাত্রলীগ জেগে থাকবে। ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ার খান জয় বলেন, আইনের দীর্ঘসূত্রিতা কমিয়ে আনা গেলে খারাপ কাজ থেকে অপরাধীরা বিরত থাকবে।

http://thesangbad.net/images/2020/January/07Jan20/news/rape-react-3.jpg

ছাত্রী ধর্ষণের বিচার চেয়ে ছাত্রদলের স্মারকলিপি পেশ:

রাজধানীর কুর্মিটোলা এলাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় দ্রুত বিচার দাবি করে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামানের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। সংগঠনের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলসহ কেন্দ্রীয় ও ঢাবি ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা মঙ্গলবার সকালে এই স্মারকলিপি প্রদান করেন। ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, ‘বিভিন্ন সময়ে নারী ধর্ষণের ঘটনায় সরকারি দলের লোকজন জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে। কিন্তু সুবিচার হয়নি। অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে। ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষনের ঘটনায় যদি দ্রুত বিচার না হয় তবে ইতিহাস কালো অধ্যায় হিসেবে থাকবে। সেই সঙ্গে আমরা অতীতের সকল ধর্ষণের ঘটনার বিচার দাবি করছি। এর আগে একই দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রদল। বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, ঢাবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম, সদস্য সচিব আমান উল্লাহ আমান সহ বিভিন্ন হলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

http://thesangbad.net/images/2020/January/07Jan20/news/rape-react-4.jpg

সন্ত্রাসবিরোধী ছাত্র ঐক্য’র বিক্ষোভ সমাবেশ:

ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের ৪৮ ঘন্টা পেরোলেও ধর্ষককে গ্রেফতার করতে না পারায় ক্ষোভ জানিয়েছেন প্রগতিশীল ১২টি ছাত্রসংগঠনের প্ল্যাটফর্ম ‘সন্ত্রাসবিরোধী ছাত্র ঐক্য’। ধর্ষণের প্রতিবাদ জানিয়ে মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) দ্বিতীয় দিনেও তারা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে করেছে। অবিলম্বে ধর্ষকের গ্রেফতারের দাবিতে বেলা সাড়ে বারোটার দিকে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে মানববন্ধন করে সন্ত্রাসবিরোধী ছাত্র ঐক্য। পরবর্তীতে তারা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে সমাবেশ করে। সমাবেশে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহবায়ক হাসান আল মামুন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের ঢাবি শাখার একাংশের সভাপতি সালমান সিদ্দিকী, ছাত্র ফেডারেশনের একাংশের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাহিদ সুজন, শামসুন্নাহার হল সংসদের সহ-সভাপতি শেখ তাসনিম আফরোজ ইমি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সমাবেশে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহবায়ক হাসান আল মামুন বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় যেন বাংলাদেশে শেষ ধর্ষণের ঘটনা হয়। দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্য ঘটনার ৪৮ ঘন্টার পেরোলেও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ধর্ষককে গ্রেফতার করতে পারেনি। ধর্ষণ বন্ধে আইনের যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা জরুরি হয়ে পড়েছে।

http://thesangbad.net/images/2020/January/07Jan20/news/rape-react-5.jpg

ডাকসুর সাংস্কৃতিক প্রতিবাদ:

শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত ও নিপীড়নের প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু)। বিচার নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ‘নিপীড়ন বিরোধী ডাকসু মঞ্চ’ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে নানা সাংস্কৃতিক আয়োজনে প্রতিবাদ কর্মসূচী চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে টিএসসিতে এই সাংষ্কৃতিক প্রতিবাদের উদ্বোধন করা হয়। এসময় ডাকসুর সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসিফ তালুকদারের সঞ্চালনায় ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত, রফিকুল ইসলাম সবুজ, মাহমুদুল হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ডাকসুর সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসিফ তালুকদার বলেন, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বোনের ধর্ষণের ঘটনায় পুরো বিশ^বিদ্যালয় পরিবার শোকাহত। তবে দুঃখের বিষয় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে বিচার নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত আমরা ঘরে বসে থাকবো না।

http://thesangbad.net/images/2020/January/07Jan20/news/rape-react-6.jpg

চার শিক্ষার্থীর অনশন চলছে:

শিক্ষার্থীর ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকের অবিলম্বে গ্রেফতারসহ চার দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন ঢাবির তিনজন শিক্ষার্থী। তারা হলেন- ঢাবির দর্শন বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সিফাতুল ইসলাম, মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম রাসেল (ডাকসুর সদস্য) এবং তথ্য-প্রযুক্তি ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থী মোস্তাফিজুর রহমান নাফিজ। তাদের সঙ্গে যোগ দেন ইতিহাস বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ও হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল সংসদের সদস্য আব্দুর রহমান। তাদের চার দাবি হলো- অবিলম্বে ধর্ষককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা; বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসনের অভিভাবকসুলভ আচরণ; সরকারি ও বেসরকারিভাবে ধর্ষণের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে উদ্যোগ গ্রহণ; দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা।

টিএসসি থেকে কুর্মিটোলা পর্যন্ত ধর্ষণবিরোধী গণপদযাত্রার ঘোষণা:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণের প্রতিবাদ ও ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে টিএসসি থেকে কুর্মিটোলা পর্যন্ত এক গণপদযাত্রার ঘোষণা দিয়েছে যৌন নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীজোট। আগামী ১১ জানুয়ারি বিকেল ৩টায় এই পদযাত্রা শুরু করবে সংগঠনটি। বিকেল চারটায় শাহবাগের এক গণঅবস্থান থেকে এই ঘোষণা দেন সংগঠনের আহ্বায়ক শিবলী হাসান।

গণঅবস্থান কর্মসূচিতে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সহ-সাধারণ সম্পাদক সঙ্গীতা ইমাম বলেন, শুধু প্রশাসন নয়, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নয়, নিপীড়নের বিরুদ্ধে ও নিপীড়কের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন করতে হবে। যৌন সন্ত্রাস রোধে মানুষের মধ্যে শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক জাগরণ জরুরি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইতিহাসবীদ মেজবাহ কামাল বলেন, নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিতে ব্যক্তি শুদ্ধিতা দরকার, দরকার আইনের যথাযথ প্রয়োগ, অন্যথায় এমন বর্বরতা কখনোই বন্ধ হবে না। মানুষের মধ্যে যদি হিংস্রতা থাকে, বর্বরতা থাকে তাহলে নারীর প্রতি নির্যাতন বাড়বেই। তাই সুশাসন নিশ্চিত ও সামাজিক শিক্ষার প্রতি তিনি গুরুত্ব দিয়েছেন।

http://thesangbad.net/images/2020/January/07Jan20/news/rape-react-7.jpg

ধর্ষকের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে ধর্ষকের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে ঢাবির রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং থিয়েটার এন্ড পারফরমেন্স স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরা। দুপুর ১২টায় সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যে ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা। তাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের কয়েকজন শিক্ষক। এরপর তারা ধর্ষকের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করে। বিকেল ৫টার দিকে থিয়েটার এন্ড পারফরমেন্স স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে রাজু ভাস্কর্যে যায়। এরপর সেখানে তারা ধর্ষকের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করে। এতে বিভাগের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

ঢাবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন আজ:

ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবি জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। এ দাবিতে তারা আজ বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে মানববন্ধন করবে। এর আগে ৬ জানুয়ারি সোমবার সন্ধ্যায় শিক্ষক সমিতির এক জরুরি সভায় এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।