সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় আরও ৪জন গ্রেফতার

image

রাজধানীর দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দায়িত্ব পালনের সময় সাংবাদিক মোস্তাফিজুর রহমান সুমনের ওপর হামলার ঘটনায় আরও চারজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। তারা হলো-জহিরুল ইসলাম ওরফে অপু, রাসেল হাওলাদার, মাসুদ ও আলাউদ্দিন। এদের মধ্যে অপু ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ হোসেন খোকনের সৎ ভগ্নিপতি। শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব-২ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ জানান, হামলার সময়ের ছবি ও ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করে এবং প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা অনুযায়ী ওই চারজনকে শনাক্ত করে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা সরাসরি হামলার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তাদের মোহাম্মদপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনার ভিডিও ফুটেজ, ছবি ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা অনুযায়ী শনাক্ত আরও কয়েকজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। প্রসঙ্গত, গত ১ ফেব্রুয়ারি দুপুরে মোহাম্মদপুর রায়েরবাজার এলাকায় একজন কাউন্সিলর প্রার্থীর সশস্ত্র বাহিনীর মহড়ার ছবি তোলায় সাংবাদিক সুমনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়। এ ঘটনায় মোহাম্মদপুর থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা করা হয়। এরপর ৫ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজধানীর রায়েরবাজার এলাকার বুদ্ধিজীবী সড়কের একটি বাসা থেকে ইসমাইল নামে একজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সাংবাদিক সুমনের ওপর হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৫জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ও র‌্যাব।

সন্ত্রাসী রিয়াদসহ সাংবাদিক হামলাকারিদের গ্রেফতারের দাবি

সিটি নির্বাচন চলাকালে রংপুর বিভাগ সাংবাদিক সমিতি, ঢাকার (আরডিজেএ) কার্যনির্বাহী সদস্য মাহবুব মমতাজী ও সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য উজ্জল হোসেন জিসানসহ অন্য সাংবাদিকদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রংপুর বিভাগ সাংবাদিক সমিতি, ঢাকা (আরডিজেএ) এর আয়োজন করে। বিক্ষোভ সমাবেশে সংহতি জানায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (ডুজা), জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি, দিনাজপুর সাংবাদিক সমিতি ঢাকাসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন। তারা সন্ত্রাসী রিয়াদসহ জড়িত অন্য সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি জানান।

আরডিজেএ সভাপতি মোকছুদার রহমান মাকসুদের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন ডিইউজে একাংশের সাধারন সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী, ডিইউজে একাংশের সাধারন সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, বিএফইউজে সাবেক যুগ্ম মহাসচিব অমিয় ঘটক পুলক, আরডিজেএ সাবেক সাধারন সম্পাদক মশিউর রহমান, আরডিজেএ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আকতারুজ্জামান, ডিইউজে সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান মিয়া, দিনাজপুর সাংবাদিক সমিতির সাধারন সম্পাদক একেএম ওবায়দুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক হুমায়ুন চিশতী প্রমুখ।