অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালককে দুদকে তলব

image

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. আমিনুল ইসলামকে তলব করে নোটিশ পাঠিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের উপ-পরিচালক মো. আবু বকর সিদ্দিক স্বাক্ষরিত তলবি নোটিশে ডা. আমিনুলকে আগামী ২১ মে সকাল ১০টায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির থাকতে বলা হয়েছে।

দুদক সূত্র জানায়, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আসে দুদকে। অভিযোগ আমলে নিয়ে আমিনুল ইসলামের অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিষয়ে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন। দুদকের উপ-পরিচালক মো. আবু বকর সিদ্দিককে অনুসন্ধান কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ করা হয়।

অভিযোগ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জণ্য ১৬ মে বৃহস্পতিবার দুদক থেকে তলবি নোটিশ পাঠানো হয় আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে। নোটিশে পাসপোটের কপি এবং আয়কর নথি নিয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে আমিনুল ইসলামকে।

দুদক সূত্র জানায়, স্বাস্থ্য অধিদফতরের দুর্নীতির মাধ্যমে শত শত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন অনেক কর্মকর্তা কর্মচারী। এর মধ্যে টেন্ডার বাণিজ্য, ভুয়া টেন্ডার, নিম্নমানের মালামাল উচ্চমূল্যে ক্রয় করে তা সরবরাহের মাধ্যমে একটি গ্রুপ নামে বেনামে অবৈধ সম্পদ গড়ে তুলেছেন। এর মধ্যে স্বাস্থ্য অধিফতরের হিসাবরক্ষণ আবজাল আহমেদের অবৈধ সম্পদের খোঁজ পায় দুদক। তা নিয়ে অনুসন্ধানের মধ্যে দেশের ৬ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টেন্ডার বাণিজ্যের মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগও অনুসন্ধান করছে দুদক। ওই অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিম্নমানের মালামাল উচ্চমূল্যের দেখিয়ে সরবরাহের মাধ্যমে ৩৭ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এক মামলায় স্বাস্থ্য অধিদফতরে আবজাল, পরিচালক অধ্যাপক ডা. আবদুর রশিদসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।