আরও এক মানব পাচারকারী গ্রেফতার

image

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধভাবে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে মানব পাচারে জড়িত চক্রের আরও এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৮। ২৪ মে শুক্রবার গাজীপুরের রাজবাড়ি বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে মো. রফিকুল ইসলাম (৩২) নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে গ্রেফতার হওয়া ৩ জনের তথ্যে রফিকুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। র‌্যাবের ভাষ্য- সম্প্রতি ইতালি যাওয়ার পথে ট্রলার ডুবিতে বাংলাদেশি যারা মারা যায় এবং জীবিত উদ্ধার হয় তাদের পাচারের সঙ্গে রফিকুলের সংশ্লিষ্টতা আছে।

র‌্যাব জানায়, গত ১০ মে মানব পাচারকারী প্রতারক চক্রের মাধ্যমে অবৈধ পথে লিবিয়া হতে ইউরোপ গমনকালে তিউনিসিয়া উপকূলের কাছে ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে ৩৭ জন বাংলাদেশি নিখোঁজ হয়। অবৈধ পথে বিদেশে পাঠানোর নামে প্রতারক চক্র বিভিন্ন সময় এদের পরিবারের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। অনাকাঙ্খিত প্রাণহানির ঘটনায় বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে ব্যাপক চাঞ্চল্যতা এবং উৎকণ্ঠার সৃষ্টি হয়। অবৈধপথে বিদেশে প্রেরণকারী সব দালাল সদস্যকে গ্রেফতারের জন্য র‌্যাবের অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে ঘটনার এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতারক চক্রের ৩ জন সক্রিয় সদস্যকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়। ওই অভিযানের ধারাবাহিকতায় ২৪ মে র‌্যাব-৮-এর একটি চৌকস আভিযানিক দল মো. রফিকুল ইসলামকে গাজীপুর জেলার রাজাবাড়ী বাজার হতে গ্রেফতার করে। রফিকুল দিনাজপুর জেলার কাহারোল থানার কুশেট এলাকার মো. জসিম উদ্দিনের ছেলে। তুরস্কের উপকূলে ট্রলারডুবিতে যেকজন বাংলাদেশি নিহত হয়েছে তাদের মধ্যে শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া থানার নলতা গ্রামের ইয়ার মোহাম্মদের ছেলে মো. রাজিবকে (২৫) লিবিয়া থেকে ইউরোপে গমনের প্রলোভন দেখিয়ে তার পরিবারকে সর্বশান্ত করে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা গত ১২ ফেব্রুয়ারি অগ্রণী ব্যাংকের মাধ্যমে মো. রফিকুল ইসলাম গ্রহণ করে। এরকম অনেক ব্যক্তির কাছ থেকে বিভিন্ন সময় মোটা অংকের টাকা সে গ্রহণ করে।

র‌্যাব জানায়, সাম্প্রতিক সময়ে প্রতারক চক্র ইউরোপে মানব পাচারে তিনটি রুট ব্যবহার করছে এবং অবৈধভাবে কয়েকটি দেশকে ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করছে। রুটগুলো হচ্ছে ১. বাংলাদেশ থেকে তুরস্কে গমন, তুরস্কের ইস্তাম্বুল হতে লিবিয়া গমন করে। ২. বাংলাদেশ হতে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে গমন-ভারত হতে শ্রীলঙ্কায় গমন (৪-৫ দিন অবস্থান) তুরস্কে গমন (৪-৫ দিন অবস্থান) অতঃপর লিবিয়ায় গমন করে এবং ৩. বাংলাদেশ হতে দুবাই (৭-৮ দিন অবস্থান)- জর্ডান গমন (৭-৮ দিন অবস্থান) ত্রিপলিতে (লিবিয়া) গমন করে। লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর হয়ে তারা পর্যায়ক্রমে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে গমনের চেষ্টা করে।