মাত্র ৫ হাজার টাকার জন্য সিলেটে যুক্তরাজ্য প্রবাসী নারীকে হত্যা

image

মাত্র পাঁচ হাজার টাকা ধার না দেয়ায় হত্যা করা হয় সিলেটের ওসমানীনগরের যুক্তরাজ্য প্রবাসী নারী রহিমা বেগম আমিনা (৭০) কে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া আব্দুল জলিল কালু (৩৯) পুলিশের কাছে এমনটি জানিয়েছেন।

শনিবার রাতে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার করে কালু। এরআগে শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার গোয়ালাবাজারের হেলাল ভিলা (করনসী রোড) থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। শুক্রবার ভোরে নিজ বাসার বাথরুম থেকে উদ্ধার করা হয় রহিমা বেগমের গলাকাটা লাশ।

গ্রেপ্তার হওয়া আব্দুল জলিল কালু উপজেলার গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের নগরীকাপন গ্রামের মৃত আব্দুল কাছিমের ছেলে। তিনি পরিবার নিয়ে গোয়ালাবাজারের করনসী রোডে বাসা ভাড়া নিয়ে বাস করছিলেন।

লাশ উদ্ধারের পর থেকে জড়িতদের ধরতে তৎপর হয়ে উঠে পুলিশ। সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ওসমানীনগর সার্কেল) রফিকুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে ওসমানীনগর থানার ওসি শ্যামল বণিকের নেতৃত্বে এসআই সুজিত চক্রবর্তীসহ পুলিশের একটি চৌকষ দল শুক্রবার দিনভর বিভিন্ন জায়গায় একাধিক জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এক পর্যায়ে শুক্রবার দিনগত রাত সোয়া ৩টার দিকে গোয়ালাবাজারস্থ হেলাল ভিলা (করনসী রোড) থেকে আব্দুল জলিল কালুকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারের পর দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে কালু তাকে ৫ হাজার টাকা ধার না দেওয়ায় রহিমা বেগমকে গলা কেটে হত্যার কথা স্বীকার করেন। এরপর শনিবার তাকে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে রহিমা বেগমের খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন ও ২৮ জুলাই বিকেল ৫ টার দিকে এ হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত বটি দা নিহতের রান্না ঘর থেকে উদ্ধার করে।