ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জয়নুল গ্যালারিতে চিত্রকর্ম প্রদর্শনী

image

চিত্রপ্রদর্শনীতে দর্শক-সংবাদ

সংঘাতের বিপরীতে সম্প্রীতি সৃষ্টিতে তারুণ্যের বুদ্ধিদীপ্ত, সৃজনশীল এবং সাহসী মোকাবিলা জরুরি। বুধবার (২৪ জুলাই) সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জয়নুল গ্যালারিতে (গ্যালারি-২) ‘সংঘাত নয় সম্প্রীতি’ শীর্ষক চিত্রকর্ম প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা এই আহ্বান জানান। কাক কমিউনিকেশনের উদ্যোগ এবং মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহায়তায় এই প্রদর্শনী আয়োজিত হয়।

চিত্রকর্ম প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন এশিয়াটিক সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক মাহফুজা খানম। অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শংকর শাওজাল, নারায়ণগঞ্জ আর্ট কলেজের প্রধান শিক্ষক শামসুল আলম আজাদ ও সাংবাদিক সোহরাব হাসান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কাক কমিউনিকেশনের প্রধান নির্বাহী জাহিদুল ইসলাম সজীব। অধ্যাপক মাহফুজা খানম বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমাজকে গড়তে চাওয়া মানেই সম্প্রীতির বাংলাদেশের ছবি আঁকা। মানুষের জন্য শিল্পের বিকাশ ঘটাতে হবে। বর্তমান সময়ের সৃষ্ট সংঘাত মোকাবিলায় তরুণদের এগিয়ে আসার বিকল্প নেই। সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শংকর শাওজাল বলেন, শহীদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে শিল্পীরা তুলির আঁচড়ে সংঘাতের বাংলাদেশের বিপরীতে সম্প্রীতির ছবি আঁকতে পারেন। সাংবাদিক সোহরাব হাসান বলেন, ‘তরুণরা সমাজের সংঘাত সংকটকে মোকাবেলায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। ন্যায়ের পক্ষে লড়াই করতে জয়নুল আবেদীন শিল্পকে বেছে নিয়েছিলেন। সংগ্রাম আর প্রতিবাদের ভাষা নানামাত্রিক। চিত্রশিল্পীরা ন্যায়ের চেতনা তুলির আঁচড়ে ফুটিয়ে তুলবেন। ফেনী কিংবা বরগুনার মতো বিভৎস বাংলাদেশ আমরা দেখতে চাই না।

নারায়ণগঞ্জ আর্ট কলেজের প্রিন্সিপাল শামসুল আলম আজাদ বলেন, তরুণ সমাজ সমসাময়িক সংকটকে বুদ্ধিদীপ্ত ও সাহসী মন নিয়ে মোকা বিলা করবে। বক্তারা বলেন, বর্তমানে সারাবিশ্বেই সংঘাত বেড়ে চলেছে। তরুণরা উগ্রবাদে না জড়িয়ে মননশীল সমাজ গঠনে যেন এগিয়ে আসে সেজন্য শিল্পের বিকাশের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অঙ্কন এবং চিত্রায়ণ বিভাগের প্রভাষক বিশ্বজিৎ গোস্বামী এবং সুমন ওয়াহিদ জুরি হিসেবে উপস্থিত থেকে চিত্রকর্ম প্রদর্শনীর মধ্য থেকে তিনটি চিত্রকর্মকে সেরা হিসেবে নির্বাচন করেন। এছাড়াও ২টি চিত্রকর্মকে বিশেষ হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা।

উল্লেখ্য, সংঘাত নয় সম্প্রীতি কর্মসূচির অংশ হিসেবে কাক কমিউনিকেশন ২০১৮-২০১৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা আর্ট কলেজ, নারায়ণগঞ্জ আর্ট কলেজ এবং সরকারি হরগঙ্গা কলেজের অংশগ্রহণকারী সৃজনশীল তরুণদের নিয়ে ৭টি আর্ট ক্যা¤েপর আয়োজন করে। এ ৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের চিত্রকর্ম নিয়ে আয়োজিত এই চিত্রকর্ম প্রদর্শনী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জয়নুল গ্যালারিতে (গ্যালারি-২) চলবে ২৪-২৯ জুলাই (বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা) পর্যন্ত।