নীরবে দেশে ফিরেছেন এন্ড্রু কিশোর

image

এন্ড্রু কিশোর

দেশে ফিরেছেন এন্ড্রু কিশোর। এত বড় তারকার সুস্থ হয়ে দেশে ফেরার খবরটা সবারই অজানা। তবে এত অবাক হওয়ারও কিছু নেই, কারণ করোনা পরিস্থিতিতে গোটা পৃথিবীর মানুষ এখন প্রতি মুহুর্ত কাটাচ্ছে অজানা আশঙ্কায়, মারা যাচ্ছে সাধারণ মানুষসহ একে একে অনেক গুনী মানুষ। এসব বিবেচনায় হয়তো এন্ড্রু কিশোর নিজেই খবরটা গোপন রাখতে চেয়েছেন।

দীর্ঘ ৯ মাস পর ৯ দিন আগে অনেকটা চুপিসারে দেশে ফিরেছেন এন্ড্রু কিশোর। জানিয়েছেন, বিশ্রামের স্বার্থে ফেরার কথাটি কাউকেই জানাননি তিনি অথবা তার পরিবারের সদস্যরা। এমনকি খবরটি দেশের বেশিরভাগ সংগীতশিল্পীরাও জানেন না। ১১ জুন রাত আড়াইটায় সিঙ্গাপুর থেকে একটি ফ্লাইটে ঢাকায় নামেন এই শিল্পী। এরপর থেকে আছেন নিজের মিরপুরের বাসাতে। জানা গেছে, বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে এন্ড্রু কিশোরের শারীরিক অবস্থা এখন আগের চেয়ে ভালো। তবে এখনও তিনি বেশ দুর্বল। তাই করোনার এই সময়ে নীরবেই বিশ্রাম নিতে চান তিনি। তাছাড়া ডাক্তারের কড়া নির্দেশ আছে কোলাহলমুক্ত থাকতে হবে। তাই এখন সেগুলো মেনে চলছেন তিনি।

উল্লেখ্য, কিডনি ও হরমোনজনিত সমস্যার কারণে উন্নত চিকিৎসা নিতে গত বছর ৯ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুরে যান এন্ড্রু কিশোর। পরে তার শরীরে ক্যানসার কোষের উপস্থিতি পাওয়া যায়। বিভিন্ন ধাপে মোট ২৪টি কেমোথেরাপি দেওয়া হয় তাকে। ব্যয়বহুল এই চিকিৎসার খরচ জোগাতে এরইমধ্যে বিক্রি করেছেন তার রাজশাহী শহরে কেনা ফ্ল্যাটটি। তার চিকিৎসা সহায়তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিল্পীর পরিবারের পাশাপাশি সংগীতশিল্পী, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান এবং প্রবাসীরা এগিয়ে এসেছেন।