শেষ হলো সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন নাট্যোৎসব

একসঙ্গে অনেকগুলো পরিচয়কে ধারণ করেছিলেন সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন। ভাষাসৈনিক, শিক্ষাবিদ, প্রাবন্ধিক ও শিক্ষক পরিচয়ের পাশাপাশি যুক্ত ছিলেন নাট্য আন্দোলনে। ছিলেন ‘পদাতিক’ নাট্য সংসদের আজীবন সভাপতি। প্রয়াত এই বরেণ্য ব্যক্তিত্বের ১১ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ছিল ৯৬তম জন্মদিন। এ দিনটিকে উপলক্ষ করে ‘পদাতিক নাট্য সংসদ’ গত ৪ এপ্রিল আয়োজন করে ‘সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মৃতি নাট্যোৎসব-২০১৯’। আট দিনব্যাপী এই নাট্যোৎসবের সমাপ্তি হয় সেমিনারে মধ্য দিয়ে। বৃহস্পতিবার তার জন্মবার্ষিকীতে শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয় ‘পদকপ্রাপ্তদের চিন্তায় শিক্ষাবিদ, নাট্যজন, প্রবন্ধকার ও কলামিস্ট সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন’ শীর্ষক সেমিনার। আর এর মধ্য দিয়েই পর্দা নামলো আট দিনব্যাপী এই নাট্যোৎসবের। সেমিনারে সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইনের ওপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অপূর্ব কুমার কুন্ডু। আলোচনায় অংশ নেন বিশিষ্ট নাট্যজন আতাউর রহমান, ম. হামিদ, গোলাম সারোয়ার, ড. ইনামুল হক প্রমুখ।

এবছর দুজন নাট্য ব্যক্তিত্বকে সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মারক সম্মাননা প্রদানের করা হয়েছে। তারা হলেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক ও বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী লাকী ও নাট্যজন গোলাম সারোয়ার। এবারের নাট্যোৎসবে প্রদর্শিত হয় ভারতের ৪টি এবং বাংলাদেশের ১৬টি নাটক। সপ্তাহব্যাপী নাটক প্রদর্শিত হয় এবং বৃহস্পতিবার ছিলো সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইনের জন্মদিন উপলক্ষে সেমিনার।