সময়কে কাজে লাগাও

image

আমাদের অনেকই আছি সময়ের সঠিক ব্যবহার করি না। অকাজে সময় নষ্ট করি। বিশেষ করে আমাদের শিক্ষার্থীদের উচিত সময় নষ্ট না করে পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়া। কারণ ছাত্র জীবনে মন দিয়ে পড়াশোনা করলে সাফল্য আসবেই। অতীতের সময়ের চেয়ে বর্তমানের সময়গুলো ভিন্ন প্রকৃতির। খুব দ্রুতই পরিবর্তিত হচ্ছে সমাজ আর সামাজিক মূল্যবোধ। প্রযুক্তিগত পরিবর্তনের স্রোতে বদলে যাচ্ছে সব কিছু।

ছাত্রজীবনে বিনোদনের প্রয়োজন রয়েছে। আগেও ছিল। কিন্তু প্রযুক্তি গত পরিবর্তন বিনোদনের মাত্রাটি আমূল পাল্টে দিয়েছে। যোগাযোগের ক্ষেত্রে ঘটেছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন। এতে জীবনের সুযোগ-সুবিধা বেড়েছে অনেক। সেই সঙ্গে সমস্যার মাত্রাটাও বেড়েছে। প্রায় সব সময় গানে ডুবে থাকা কিংবা রাত জেগে মোবাইলে কথা বলা, ইন্টারনেটে অপ্রয়োজনে সময় নষ্ট করা কিংবা বন্ধুদের ডাকে যখন তখন যেখানে সেখানে ছুটে যাওয়া জীবনের সময়কে নষ্ট করে দিতে পারে নিজের অসচেতনতার মধ্যেই। বন্ধু প্রয়োজন আছে, আর বন্ধুত্ব গড়ে তোলা কিংবা বন্ধুত্ব তৈরি হওয়ার সেরা সময়টি হচ্ছে ছাত্রজীবন।

এ সময়ের বন্ধুত্ব প্রত্যেকের ব্যত্তিপ্তজীবনেই কিছু না কিছু প্রভাব ফেলে, যার ফলাফল হয়ে থাকে দীর্ঘমেয়াদি। সুতরাং বন্ধুত্ব গড়ে তোলা কিংবা বন্ধুত¦ রক্ষার ক্ষেত্রেও শিক্ষার্থী হিসেবে সাবধানে পা ফেলতে হবে।

কেননা, সব বন্ধুর ব্যক্তিগত বৈশিষ্ট্য একরকম নয়। তাদের মধ্যে কেউ থাকতে পারে সুপথে, কেউ বিপথে।

শিক্ষাজীবনের সময়কে কাজে লাগাতে হবে নিজের মতো করে। প্রতিযোগিতামূলক জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে অবশ্যই সময়ের সদ্ব্যবহার করতে হবে। প্রয়োজনে প্রাত্যহিক কাজের পরিকল্পনা লিখিতভাবে তৈরি করে নিতে হবে, যার মধ্যে সবচেয়ে প্রাধান্য পাবে পড়াশোনা।

শিক্ষার্থীদের জীবন তথা ছাত্রজীবন হচ্ছে জীবনের সবচেয়ে সুন্দরতম সময়। কিন্তু এই সুন্দরতম সময়েও সব সময় মনে রাখতে হবে জীবন গড়ার কথা। আর প্রতিনিয়ত সংগ্রামই হচ্ছে জীবন গড়ার মূলকথা। এ জন্য তোমাকে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করতে হবে। যারা তোমার চেয়ে বয়সে বড়, অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ তাদের সঙ্গে আলোচনা করো, মতবিনিময় করো বন্ধুদের সঙ্গে। প্রতিদিনের সংবাদপত্রে জীবন সংগ্রাম, অধ্যবসায় ও ব্যক্তিগত সাফল্যের সংবাদ ফিচারগুলো পড়বে।

আমাদের দেশে বহু শিক্ষার্থী রয়েছে, যারা নানা ক্ষেত্রে সুযোগ-বঞ্চিত। অর্থনৈতিক, পারিবারিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে অনেক শিক্ষার্থীই বঞ্চিত। এদের মধ্যে অনেকেই প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করে তাদের শিক্ষাজীবনকে পরিচালনা করে। দরিদ্র ও সুযোগবঞ্চিত অনেক শিক্ষার্থীই জীবনকে অর্থবহ এবং সফল করার জন্য সব শক্তি নিয়োগ করে। প্রবল প্রচেষ্টায় সামান্য সুযোগকে আঁকড়ে ধরেও সাফল্যকে ছিনিয়ে আনে তারা। আমরা প্রায়শই তাদের কথা জানতে পারি।

তোমরা যারা শিক্ষার্থী, জীবন ও সমাজকে গড়ার জন্য তোমাদের এখনো রয়েছে পর্যাপ্ত সময়। তবে সময় থেমে নেই। প্রতিনিয়তই তা হারিয়ে যাচ্ছে। মূল্যবান এ সময় কাজে লাগাতে হলে তোমাদের সক্রিয় হতে হবে এখনই। তোমাদের প্রতিদিনের সময়গুলো কাজে লাগাতে হবে সুশৃঙ্খলভাবে-কার্যকরভাবে। এর ফলে তোমাদের অবারিত স্বাধীনতার পরিবর্তে আত্মনিয়ন্ত্রণের পথকেই বেছে নিতে হবে। প্রতিদিনের জীবনযাত্রায় এবং বন্ধুবান্ধবের সাহচর্যে নতুন নতুন বিষয় ও নতুন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হবে তুমি।

কিন্তু প্রতিটি বিষয়ের ভালোমন্দ সতর্কভাবে বিচার করতে হবে তোমাকেই। তোমার সব বন্ধুই হয়তো ভালো কাজগুলো বেছে নিতে পারেনি।

সেক্ষেত্রে তার অন্ধ অনুকরণ না করে ভালোটিকেই বেছে নিতে হবে। তোমরা যদি জীবনের এই সোনাঝরা সময়গুলো অপচয় না করে প্রকৃত কাজে ব্যয় করতে পার- তাহলে দেখবে তোমার আগামী দিনগুলো হয়ে উঠবে পুরোপুরি সাফল্যমণ্ডিত।

একুশে পদকপ্রাপ্ত রাবি অধ্যাপক দেবদাসের দাফন সম্পন্ন

image

সুবিধা বঞ্চিত দুই শিক্ষার্থীকে শিক্ষা বৃত্তি দিলো বিইআরএফ

image

এইচএসসি বিশেষ পরামর্শ : মন দিয়ে অনুশীলন করো

image

পরামর্শ : সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর লেখার নিয়ম

image

করোনা মোকাবিলায় দিশা দেখাবে আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ সিএইচ

image

নর্দান মেডিকেলের অধ্যক্ষ করোনায় ঢাকা মেডিকেলে মৃত্যু

image

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীতে কোটি মানুষের কর্মসংস্থানের দাবি এমডব্লিউইআরের

image

আগামী বাজেটে পাঁচ হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তির দাবি

আসন্ন ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেটে কমপক্ষে আরও পাঁচ হাজার নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তির জন্য অর্থ বরাদ্দের দাবি।

করোনায় ঢাবির সাবেক অধ্যাপকের মৃত্যু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সাবেক অধ্যাপক এবং ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর ড. নাজমুল করিম চৌধুরী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।