ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার-ছাত্র-শিক্ষকদের আলটিমেটাম

৬ আগস্টের মধ্যে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহার না হলে কঠোর আন্দোলন

image

যে কোন বয়সের শিক্ষার্থীদের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা কোর্সে ভর্তির সুযোগ রেখে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তির যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে, তা পুরো শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংসের শামিল উল্লেখ করে তা আগামী ৬ আগস্টের মধ্যে তা প্রত্যাহার করে পুন:বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দাবি জানিয়েছে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার ও পলিটেকনিক শিক্ষক-ছাত্র নেতৃবৃন্দ। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে আজ (২৮ জুলাই) সকাল ১১টায় আগারগাঁওস্থ ডিটিই ও বিটিইবি ভবন সংলগ্ন সড়কে বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদ (বাকাছাপ), বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদ, বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক সমিতি (বাকাছাপ) ও বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স সার্ভিস এসোসিয়েশন সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত মানববন্ধন থেকে নেতৃবৃন্দ এ আহ্বান জানান।

সমাবেশে বক্তাগণ বলেন, অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক ভর্তি নীতিমালা বাস্তবায়িত হলে পুরো ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা ব্যবস্থায় চরম অস্থিরতা সৃষ্টি হবে, যা কারিগরি শিক্ষায় সরকারের অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনকে বাধাগ্রস্ত করবে। তারা বলেন, ১৫/২০ বছর পূর্বে এসএসসি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর পক্ষে আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এর বিষয়গুলো অনুধাবন করা কোনভাবেই সম্ভব হবে না। এদের অধিকাংশই ১/২ বছরের মধ্যে ঝরে যাবে। সিটগুলো শূন্য হবে, ড্রপ আউট আরো বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি বয়সের ব্যাপক পার্থক্যের কারণে শ্রেণীকক্ষের ভারসাম্য নষ্ট হবে, খুন-চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের কারণে সামাজিক ও প্রশাসনিক সমস্যা দেখা দেবে।

বক্তাগণ বলেন, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড আইন-২০১৮ এর ৮(ঙ) ধারায় দেয়া ক্ষমতা ব্যবহার করে বোর্ডের চেয়ারম্যান ভর্তি সংক্রান্ত জটিলতা এড়াতে পারলেও কোন অদৃশ্য অপশক্তির কারণে সেটি করেন নাই, তার জবাব তাকে দিতে হবে। বিতর্কিত ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহার না করলে রাজপথে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে মর্মে হুশিয়ারি দেন নেতারা। এর দায় কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে নিতে হবে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন আইডিইবি’র সভাপতি এ কে এম এ হামিদ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ শামসুর রহমান, বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদের সভাপতি মোঃ খবির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এ কে এম আব্দুল মোতালেব, বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স সার্ভিস এসোসিয়েশন সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক মোঃ ফজলুর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি হাফিজ আহমেদ সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক এ এম জহিরুল ইসলাম, বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদের সভাপতি মোঃ মেহেদী হাসান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম মোল্লা প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে স্ব স্ব সংগঠনের পক্ষে পুনঃভর্তি বিজ্ঞপ্তির যৌক্তিকতা তুলে ধরে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবং বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।