একই অনুষ্ঠানের বিচারক সজল, কনা ও নাদিয়া

image

একই অনুষ্ঠানের বিচারক হিসেবে কাজ করছেন আবদুন নূর সজল, দিলশাদ নাহার কনা ও নাদিয়া আহমেদ। আরটিভিতে প্রচার চলতি ক্যাম্পাসভিত্তিক রিয়েলিটি শো ‘ক্যাম্পাস স্টার সিজন টু’র প্রধান তিনজন বিচারক হিসেবে কাজ করছেন তারা। সপ্তাহের প্রতি শনি ও রোববার সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিটে আরটিভিতে এই রিয়েলিটি শো’টি প্রচার হচ্ছে। দেশের নানান বিশ^বিদ্যালয় থেকে পড়াশুনার বাইরেও নানান বিষয়ে দক্ষ শিক্ষার্থীরা এই রিয়েলিটি শো’তে অংশ নিচ্ছেন। বর্তমানে চ্যানেলটিতে শো’টির সিলেকশন রাউন্ড প্রচার হচ্ছে। অনুষ্ঠানটিতে বিচারক হিসেবে কাজ করা প্রসঙ্গে সজল বলেন, ‘এ রিয়েলিটি শো’তে যারা অংশগ্রহণ করছে তারা প্রত্যেকেই ভীষণ মেধাবী। নাচ, গান, অভিনয় সম্পর্কে তাদের জানার জায়গাটা বিষদ। এই মেধবীদের মধ্য থেকে তাদের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে ছোট ছোট ভুল ধরে বিচারকার্য সম্পন্ন করা খুবই কঠিন। তারপরও যারা বিদায় নিয়ে চলে যায় তাদের জন্য খারাপ লাগে, কষ্ট হয়।’ দিলশাদ নাহার কনা বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মধ্যে তাদের পড়ালেখার পাশাপাশি অন্যান্য বিষয়ে যেমন নাচ গান অভিনয়ে অনুপ্রেরণা দিতেই মূলত এই শো’র আয়োজন। আমরা এরইমধ্যে অনেক মেধাবী শিক্ষার্থী পেয়েছি যারা আগামী দিনে নাচে, গানে এবং অভিনয়ে হয়তো নিজেদের যোগ্যতা দিয়ে নিশ্চয়ই ভালো অবস্থান তৈরি করে নেবে।’ নাদিয়া আহমেদ বলেন, ‘ধন্যবাদ জানাই আরটিভি’সহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে যারা এই শো’তে বিচারক হিসেবে গুরু দায়িত্ব পালন করার সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছেন। অনেক মেধাবীদের মধ্য থেকে শীর্ষ কয়েকজনে নিয়ে আসা সত্যিই খুব কঠিন কাজ। তারপরও আমরা যারা বিচারক হিসেবে কাজ করছি খুব সচেতন থেকেই সত্যিকারের মেধাবীদেরই খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি। আমার বিশ্বাস যারা শীর্ষ পর্যায়ে স্থান পাবেন তারা আগামী দিনে আমাদের সংস্কৃতি অঙ্গনে নিজেদের মেধার স্বাক্ষর রাখবেন।’ আগামী ১ ডিসেম্বর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে ‘আরটিভি ডাবর ভাটিকা ক্যাম্পাস স্টার সিজন টু’র গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানটির প্রযোজক শিবলী জিয়া।