চলচ্চিত্রের মানুষদের পাশে ডিপজল

image

চলচ্চিত্রের মুভিলর্ডখ্যাত মনোয়ার হোসেন ডিপজল অসহায় মানুষের পাশে সব সময়ই দাঁড়ান। কাজটি তিনি নীরবেই করেন। তিনি মনে করেন, মানুষের পাশে দাঁড়ানো বা কাউকে সহযোগিতা করার বিষয়টি গোপনেই করতে হয়। হাদিসে আছে, ডান হাতে সাহায্য করলে বাম হাতও যেন না জানে। কাউকে জানিয়ে সাহায্য করার অর্থ হচ্ছে নিজেকে জাহির করা। এটা মোটেও উচিত নয়। ডিপজলের দান করার বিষয়টি বরাবরই গোপন থাকে। শুধু যারা তাকে পাশে পান, তারাই জানেন। আর জানে আশপাশের মানুষ। নিজ এলাকায় অসহায় মানুষের পাশে সবসময়ই তিনি দাঁড়ান। আর তার নিজের জগৎ চলচ্চিত্রের মানুষের পাশে সবসময়ই থাকেন। অসহায় শিল্পী, কলাকুশলী, পরিচালক, টেকনিশিয়ানদের বরাবরই সহযোগিতা করেন। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তিনি অনুদান দিয়ে থাকেন। অর্থাৎ চলচ্চিত্রের যে কোনো প্রয়োজনে ডিপজল এগিয়ে আসেন। করোনাভাইরাসে সৃষ্ট দুর্যোগে অসহায় হয়ে পড়া চলচ্চিত্রের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। অনেকটা নীরবেই তাদের সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। ডিপজলের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, তিনি বলেছেন, চলচ্চিত্রের কাউকে না খেয়ে থাকতে হবে না। যতদিন প্রয়োজন হবে আমার সাধ্য মতো তাদের সহযোগিতা করে যাব। ইতোমধ্যে তিনি নীরবে চলচ্চিত্রের অসহায় মানুষদের সহায়তা শুরু করেছেন এবং তা অব্যাহত রেখেছেন। এ ব্যাপারে ডিপজল বলেন, এ বিষয়গুলো গোপন থাকাই ভালো। তা নাহেল, তা জাহির করা হয়। লোক দেখানো বিষয়ে পরিনত হয়। এমন কাজ আমার পছন্দ নয়। আমি আমার সাধ্যমতো আমার চলচ্চিত্রের মানুষের পাশে সবসময় দাঁড়ানোর চেষ্টা করি। যতদিন বেঁচে থাকব তাদের পাশে থাকব। আর এটা বলারও বিষয় নয়। মানুষের পাশে দাঁড়ানো বা সহযোগিতা করার মানসিকতার বিষয়। আর মানুষের পাশে দাঁড়ানো সহজ বিষয় নয়। এ সক্ষমতা আল্লাহ সবাইকে দেন না। অনেকের সক্ষমতা থাকলেও মানুষের পাশে দাঁড়ান না। এটা তার মানসিকতার ব্যাপার। আমি চেষ্টা করি মানুষের পাশে দাঁড়াতে।