ফেরদৌসী রহমানকে সম্মাননা দিচ্ছেন ফেরদৌস আরা

image

আগামী ১৪ মার্চ জাতীয় জাদুঘর প্রধান মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বরেণ্য নজরুল সংগীতশিল্পী ফেরদৌস আরার উদ্যোগে সংগীতবিষয়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘সুরসপ্তক’র বিশ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান। আর এই প্রতিষ্ঠানের বিশ বছর পূর্তিতে উপমহাদেশের বরেণ্য সংগীতশিল্পী ফেরদৌসী রহমানকে সেদিন ফেরদৌস আরা ‘শ্রদ্ধাঞ্জলি সম্মাননা’ তুলে দিবেন বলে নিশ্চিত করেছেন ফেরদৌস আরা। বিষয়টি জেনে বেশ আনন্দিত হয়েছেন ফেরদৌসী রহমান। ‘শ্রদ্ধাঞ্জলি সম্মাননা’ পাওয়া প্রসঙ্গে কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী ফেরদৌসী রহমান বলেন, ‘ফেরদৌস আরা আমার খুব স্নেহের ছোট বোন। সুরসপ্তক’র বিশ বছর পুর্তিতে তার এই উদ্যোগকে আমি আন্তরিকভাবে স্বাগত জানাই। শুধু তাই নয় সুরসপ্তক’কে ঘিরে তার যতো স্বপ্ন আছে সব স্বপ্নই পূরণ হোক। আমি আমারও কিছু স্বপ্ন তাকে দিয়ে যেতে চাই যাতে সেই স্বপ্ন তার বুকে লালন করে নিজের মধ্যে ধারণ করে আমার স্বপ্নও যেন পূরণ করতে পারে। কারণ এক জীবনে মানুষের সব স্বপ্ন পূরণ হয় না। তাই আমার কিছু স্বপ্নের কথা তাকে বলে যেতে চাই এবং তা যেন সে পূরণ করতে পারে সেই দোয়া থাকবে। সুরসপ্তক’ অনেক দূর এগিয়ে যাক, সুরসপ্তকের মাধ্যমে আমাদের সংগীতাঙ্গন আরো সমৃদ্ধ হোক, এই শুভ কামনা রইলো। আর একজন ফেরদৌস আরার একার চেষ্টায় হয়তো সুরসপ্তক’র যাত্রা শুরু হয়েছিল। কিন্তু তার পাশে আমাদের সবাইকে থাকতে হবে।’

ফেরদৌস আরা বলেন, ‘সেই ছোট্টবেলা থেকেই ফেরদৌসী রহমান আপার স্নেহ, আদর ভালোবাসা পেয়ে আসছি আমি। আমার প্রতিষ্ঠানের ২০ বছরপূর্তিতে তাকে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাতে পারছি তাও আবার তার জীবদ্দশায় এটাই আমার ভীষণ ভালোলাগার। আপাকে প্রথম যেদিন এই শ্রদ্ধাঞ্জলি সম্মাননা’র বিষয়ে ফোন করি তিনি সেদিনই তার উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছিলেন আমাকে। আমি যে তাকে আমার প্রতিষ্ঠানের ২০ বছরপূর্তিতে এভাবে সম্মাননা জানাব, এটা জেনে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলেন। সত্যি বলতে কী আপা আমাকে এতোটাই আদর স্নেহ করেন যে তার কাছে আমি যত আবদার করেছি তা তিনি রাখার চেষ্টা করেছেন। একজন ফেরদৌসী রহমান আমাদের সংগীতাঙ্গনের গর্ব। তার হাত ধরেই এদেশের সঙ্গীতাঙ্গন সমৃদ্ধ হয়েছে। হয়েছে আলোকিত। আল্লাহ তাকে সুস্থ রাখুন, ভালো রাখুন।’