ভারতে আটক জেলেদের মুক্তির লক্ষ্যে হারুন রুশোর পথনাটক ‘মাছুয়া’

image

বর্তমান সময়ের ছোটপর্দার তরুণ, মেধাবী, জনপ্রিয় পরিচালক হারুন রুশো। করোনা পরিস্থিতিতে টানা ৭২ দিন শুটিং বন্ধ থাকার পর ১ জুন থেকে টিভি নাটকের শুটিং শুরু করেছেন। তবে এরই মধ্যে জেলেদের মুক্তির লক্ষ্যে হারুন ‘মাছুয়া’ নামের একটি নাটক লিখেছেন। গত বছর ডিসেম্বরে বাংলাদেশি ২৬ জন জেলে বৈধ ভিসায় ভারতের আসামে গিয়েছিল মাছ ধরতে। করোনাভাইরাসের পাদুর্ভাবে দেশে ফেরার আগে ভারত সরকার ঘোষিত লকডাউনে আটকেপড়ায় শেষ হয়ে যায় তাদের ভিসার মেয়াদ। বর্তমানে ফরেন এফেয়ার্স আইনে সবাই এখন আসামের জেলখানায় আটক রয়েছে। তাদের মুক্তির দাবিতে কুড়িগ্রামে একাধিকবার মানববন্ধন করেছন স্বজনরা। গ্রেফতার হওয়া ২৬ বাংলাদেশির মধ্যে বকুল মিয়া (৫৭) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। গত বুধবার (১ জুলাই) সকালে ভারতের আসাম রাজ্যের ধুবড়ি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে জানা গেছে। প্রায় অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তাদের দেশে ফেরার ভাগ্য। তাই আটককৃত জেলেদের মুক্তির ব্যাপারে ঢাকায় অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের সামনে ‘মাছুয়া’ পথনাটকটি মঞ্চায়ন করতে চান। এর জন্য তিনি নাট্যকর্মীদের সহযোগিতা চেয়েছেন।

হারুন রুশো বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় মাত্র এক-দুই দিনের রিহার্সেলের মাধ্যমেই পথনাটকটি প্রদর্শন করা হবে। শিল্পমান কিংবা নাট্যরসের উৎকর্ষতা এখানে বিবেচ্য নয় বরং জেলেদের প্রতি অমানবিক আচরণের প্রতিবাদই হবে পথনাটকের একমাত্র উদ্দেশ্য। আগ্রহী নাট্যবন্ধুদের সদয় অংশগ্রহণের জন্য অনুরোধ করছি।’

হারুন রশো’র এই মানবিক কাজটিকে সবাই সাধুবাদ জানিয়েছে অনেকেই এবং টিভি নাটকের অনেক জনপ্রিয় মুখ পথনাটক’টিতে অংশগ্রহণ করার আগ্রহ জানিয়েছেন।