ট্রাম্পের আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু

image

ফ্লোরিডায় আগামী মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণায় ট্রাম্প-ডেইলি মেইল

৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দ্বিতীয় মেয়াদে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে যাত্রা শুরু করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ১৮ জুন মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য ফ্লোরিডায় হাজারো সমর্থকের উল্লাসধ্বনির মধ্য দিয়ে ২০২০ সালের নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেন তিনি। বিবিসি।

২০১৬ সালের ৪৫তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ফ্লোরিডা ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান প্রার্থীর অন্যতম প্রধান লড়াই ক্ষেত্র হিসেবে আবির্ভূত হয়। সেবার অল্প ভোটে হিলারিকে হারিয়ে ডেমোক্র্যাটদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ এ অঙ্গরাজ্যটিতে জয় পান ট্রাম্প। অরল্যান্ডোতে প্রচার সমাবেশের শুরুতে রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ফ্লোরিডাকে নিজের ‘দ্বিতীয় বাড়ি’ হিসেবে অ্যাখ্যা দিয়ে তাকে চার বছরের জন্য ফের নির্বাচিত করতে সমর্থকদের আহ্বান জানান। ডেমোক্র্যাটরা ‘যুক্তরাষ্ট্রকে টুকরো টুকরো’ করার চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। ‘আমরা যুক্তরাষ্ট্রকে ফের শ্রেষ্ঠ করার চেষ্টা চালিয়ে যাব। এখানে আজ আমি আপনাদের সামনে দাঁড়িয়েছি- দ্বিতীয় মেয়াদে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু করতে।’ নিজের ২০১৬-র নির্বাচনী প্রচারণাকে ‘একটি দুর্দান্ত রাজনৈতিক আন্দোলন’ হিসেবেও অভিহিত করেন তিনি। ‘যতদিন পর্যন্ত আপনারা এ দলকে (রিপাবলিকান) রাখবেন, আমাদের অনেকদূর যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ৪৫তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে অবৈধ অভিবাসীদের রুখতে ট্রাম্প যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, এবারের প্রচারে তার ধারাবাহিকতা রক্ষায় জোর দেন তিনি। ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বীরা মেক্সিকো সীমান্ত অতিক্রম করা অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা দিতে পারে বলেও সতর্ক করেছেন ট্রাম্প। অরল্যান্ডোর অ্যামওয়ে সেন্টারের বাইরে ট্রাম্পের অপেক্ষায় অনেক সমর্থক ১৭ জুন সোমবার থেকেই অবস্থান করছিলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। সমাবেশে ঢোকার লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা বেশিরভাগ রিপাবলিকান সমর্থকই অভিবাসন ও অর্থনীতি নিয়ে তাদের উদ্বেগের কথা জানান, প্রতিবেদনে এমনটাই বলেছে সিবিএস নিউজ। জরিপ সংস্থা গ্যালাপ বলছে, দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে কখনোই ট্রাম্পের সমর্থন ৪৬ শতাংশের ওপরে ওঠেনি। গত মাসে এ সমর্থন নেমে এসে ৪০ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। ট্রাম্পের পছন্দের জরিপ প্রতিষ্ঠান রাসমুসেনের রেটিংয়েও মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রতি জনসাধারণের আস্থা কখনোই ৪৮ শতাংশের ওপরে দেখা যায়নি। ফক্স নিউজের জনমত জরিপে ২০২০-র নির্বাচনে প্রার্থিতা ঘোষণা করা সাবেক মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চেয়েও ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা ১০ পয়েন্ট কম দেখা গেছে। আরেক জনপ্রিয় ডেমোক্র্যাট সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্সের চেয়েও ট্রাম্প পিছিয়ে আছেন ৯ পয়েন্ট। জরিপে মার্কিন প্রেসিডেন্টের চেয়ে এলিজাবেথ ওয়ারেন ও কমলা হ্যারিসকেও সামান্য ব্যবধানে এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। ট্রাম্প সমর্থকরা অবশ্য এসব জরিপকে মোটেও আমলে নিচ্ছেন না। তারা বলেন, ২০১৬-র নির্বাচনের আগেও বিভিন্ন জরিপে রিপাবলিকান প্রার্থীকে ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বীর পেছনেই দেখানো হয়েছিল। ফলাফলে দেখা গেছে তার উল্টোটা।