করোনার চিকিৎসায় ম্যালেরিয়ার ওষুধ বন্ধ : ডব্লিউএইচও

image

করোনা ভাইরাস উপশমে ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের পরীক্ষামূলক ব্যবহার আপাতত বন্ধ রাখতে বলেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি জানিয়েছে, সতর্কতা হিসেবে কয়েকটি দেশে সাময়িকভাবে এই পরীক্ষা বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। সাম্প্রতিক এক মেডিক্যাল গবেষণায় ওষুধটি ব্যবহারে কোভিড-১৯ রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি বাড়তে পারে বলে ইঙ্গিত পাওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডব্লিউএইচও।

সংস্থার পক্ষ থেকে মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস বলেন, কোভিড-১৯ রোগীদের ক্ষেত্রে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের প্রয়োগ কতটা নিরাপদ, তার পর্যালোচনা চলছে, তার আগ পর্যন্ত বিশ্ব সংস্থার নির্বাহীরা এই ওষুধটির পরীক্ষামূলক ব্যবহার স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় বিশ্বে অনুমোদিত অন্য যেসব ওষুধের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে, তা চলবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরি কর্মসূচির প্রধান ডা. মাইক রায়ান বলেছেন, সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের ব্যবহার স্থগিত রাখার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সংক্রমণের গতি কমে যাওয়ায় যেসব দেশ বিধি-নিষেধ শিথিল করেছে, সেখানে পুনরায় করোনাভাইরাসের বিস্তারের ঝুঁকি রয়েছে।

করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক হিসেবে নিয়মিত হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন গ্রহণের কথা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ম্যালেরিয়ার ওষুধ হিসেবে পরিচিত এই ওষুধটি করোনা চিকিৎসায় ব্যবহারের পক্ষে দীর্ঘদিন ধরেই বলে আসছেন ট্রাম্প। তবে এর কার্যকারিতা নিয়ে সন্দেহপোষণ করে আগেই সতর্ক করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ)। গত সপ্তাহে ল্যানচেট মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত এক জরিপে বলা হয়, করোনাভাইরাস রোগীদের হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন দিয়ে চিকিৎসা দেওয়ায় কোনও লাভ নেই। এমনকি এতে মৃত্যুঝুঁকিও বাড়তে পারে। হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ম্যালেরিয়ার চিকিৎসায় নিরাপদ আর লিউপাস কিংবা আর্থারাইটিসের মতো লক্ষণ চিকিৎসাতেও এটি নিরাপদ। কিন্তু কোনও মেডিক্যাল পরীক্ষায় কোভিড-১৯ চিকিৎসায় এটি ব্যবহারের সুপারিশ করা হয়নি। কোভিড-১৯ চিকিৎসায় কোন ওষুধ ব্যবহার করা যায় তানিয়ে বেশ কয়েকটি ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা চালাচ্ছে ডব্লিউএইচও। সোমবার জাতিসংঘের স্বাস্থ্য সংস্থাটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এসব পরীক্ষার তালিকা থেকে বাদ পড়বে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন।