ভারতে সেনাদের ৮৯ অ্যাপ ডিলিটের নির্দেশ

image

ভারতের সেনা সদস্য ও কর্মকর্তাদের আগামী ১৫ জুলাইর মধ্যে মোবাইল থেকে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামসহ ৮৯টি অ্যাপ ডিলিট করার জন্য আদেশ দেওয়া হয়েছে।

ভারতের মোট সেনা সংখ্যা ১৩ লাখ। তাদের সবার প্রতি জারি করা এ আদেশ না মানলে কঠোর শাস্তি পেতে হবে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার। এর আগে সরকারের পক্ষ থেকে ভারতে ৫৯টি অ্যাপ বন্ধ করা হয়। সেনাবাহিনীতে কর্মরতদের জন্য নিষিদ্ধ ৮৯টি অ্যাপসের মধ্য সেই ৫৯টিও অন্তর্ভুক্ত।

সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অনলাইনে ভারতের সেনাদের ওপর পাকিস্তান ও চীনের গোয়েন্দা সংস্থার নজরদারি সাম্প্রতিক কালে অস্বাভাবিক বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে এ আদেশ দেওয়া হয়েছে।

নৌবাহিনীর জন্য ফেসবুক বন্ধের নির্দেশ দেওয়ার পরই সেনাবাহিনীর জন্য এ আদেশ এলো। গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের নিরাপত্তার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে বলা হয়েছে।

নৌবাহিনীর সদস্যদের তাদের ঘাটিতে মোবাইল ফোন আনতে নিষেধ করা হয়েছে।

সম্প্রতি ভাইজাগ, কারওয়ার নৌঘাটির বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা এবং মুম্বাইভিত্তিক মোবাইলের মাধ্যমে অর্থ স্থানান্তরের প্রতিষ্ঠানের লোকজনকে তথ্য পাচারের জন্য গ্রেফতার করা হয়। ঐ নৌকর্মকর্তাদের অনলাইন সম্পর্কের ফাঁদে ফেলে তথ্য হাতিয়ে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

তবে সেনাবাহিনীকে এখনো ফেসবুক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা না দেওয়া হলেও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। যেমন সেনাবাহিনীর কেউই ইউনিফর্ম পরা ছবি, ইউনিটের নাম ,ঠিকানা ব্যবহার করতে পারবেন না। এর আগে তাদের ব্যাটালিয়ন ও যুদ্ধজাহাজের অবস্থান,তাদের টহলের ছবি ফেসবুকে দেওয়ায় বেশ কিছু কর্মকর্তাকে কোর্ট মার্শালর মাধ্যমে শাস্তি দেওয়া হয়।

গত নভেম্বরে সেনাবাহিনীতে কর্মরতদের হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয় এবং যেসব কর্মকর্তা স্পর্শকাতর দায়িত্বে আছেন তাদের ফেসবুক একাউন্ট মুছে ফেলতে বলা হয়।