মৃতের সংখ্যায় চীনকে ছাড়াল নিউইয়র্ক

image

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৬০ হাজার ছাড়ানোর প্রেক্ষিতে মার্কিনিদের জন্য ‘ভয়াবহ সপ্তাহ’ আসার হুঁশিয়ারি ট্রাম্পের

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাস মহামারীতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যায় চীনকে ছাড়িয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য নিউইয়র্ক। আর এ সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যে একদিনের আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়েছে। এরই মাঝে যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত পাঁচ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তবে পরপর টানা দুই দিন নিহতের সংখ্যা কমেছে ইউরোপের দ্বিতীয় সর্বাধিক আক্রান্ত দেশ স্পেনে। রয়টার্স, বিবিসি, আল-জাজিরা।

এক প্রতিবেদনে রয়টার্স জানিয়েছে, বিশ্বে প্রায় ১২ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আর মৃত্যু হয়েছে ৬৪ হাজার ৬৫০ জনের। এদিকে ৫ এপ্রিল রোববার সকালে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ৫৬৫ জন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। আর শেষ ২৪ ঘণ্টায় পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১ হাজার ৩২৮ জন। অপরদিকে যুক্তরাজ্যে মারা গেছেন ৭০৮ জন। তবে ইউরোপের দ্বিতীয় সর্বাধিক আক্রান্ত দেশ স্পেনে গত ২ এপ্রিল বৃহস্পতিবার এ সংখ্যা ৯৬১ জন থেকে কমে শুক্রবার ৮৫০ আর শনিবার (৪ এপ্রিল) সে সংখ্যা আরও কমে ৮০৯ জনে এসেছে।

বিশ্বের মধ্যে এখন সর্বোচ্চ কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। এ ভাইরাস সংক্রমণে ফ্লু ধরনের এ শ্বাসতন্ত্রের রোগে ভুগছে দেশটির তিন লাখ ১২ হাজারেরও বেশি মানুষ এবং মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৪৯৬ জনের। সর্বশেষ এক দিনে দেশটিতে ১ হাজার ৩২৮ জনের মধ্যে নিউইয়র্কেরই ৬৩০ জন। অঙ্গরাজ্যটিতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এখন প্রায় ১ লাখ ১৩ হাজার যা পুরো ইতালির আক্রান্তের প্রায় সমান। আর বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যায় চতুর্থ স্থানে থাকা জার্মানির চেয়েও অনেক বেশি। তবে আগামী ৪ থেকে ১৪ দিনের মধ্যে পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটতে পারে বলে সতর্ক করেছেন নিউইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো। সবচেয়ে উদ্বেগজনক অবস্থা বিরাজ করছে নিউইয়র্ক শহরের ?পূর্বাঞ্চলীয় শহর আইল্যান্ডে। এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ‘দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ছে’ বলে শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন অঙ্গরাজ্যেরটির গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো। অঙ্গরাজ্যটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৩০ জনের মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে, যা এখানে এ পর্যন্ত একদিনে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা। এদের নিয়ে অঙ্গরাজ্যটির মোট মৃত্যুর সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার ছাড়িয়ে যায়। সবচেয়ে বেশি ২৬২৪ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে নিউইয়র্ক শহরে। শহরটির হাসপাতালগুলো অসুস্থদের চিকিৎসা দেওয়ার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করছে, কিন্তু তারপরও মৃত্যুর মিছিল ঠেকাতে পারছেন না। মৃতদের কবর দেয়া নিয়ে রীতিমতো সংগ্রাম করছে শহরের মর্গগুলো। সংক্রমণের ঝুঁকি থাকায় গুরুতর অসুস্থদের রোগীদের স্বজনরা তাদের প্রিয়জনের জীবনের শেষ মুহূর্তগুলোতেও পাশে থাকতে পারছেন না।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের হিসাবে আটলান্টিক পাড়ের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের নিউইয়র্ক শহর থেকে শুরু করে উত্তরপশ্চিম দিকে কানাডার সীমান্ত পর্যন্ত বিস্তৃত। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা থেকে সপ্তাহখানেক দূরে আছে। এর আগে হোয়াইট হাউসের মেডিকেল বিশেষজ্ঞরা কোভিড-১৯ মহামারীতে যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ থেকে ২ লাখ ৪০ হাজার লোক মারা যেতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছেন। দেশব্যাপী ঘরবন্দি নির্দেশনা থাকার পরও এত মানুষের মৃত্যু হতে পারে বলে আশঙ্কা তাদের। এমন পরিস্থিতির মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের হাতে থাকা জরুরি চিকিৎসা উপকরণ প্রায় শেষ হয়ে এসেছে। এসব উপকরণ চিকিৎসক ও নার্সদের সুরক্ষার জন্য অতি প্রয়োজন।

এদিকে চীন সরকারের পাঠানো এক হাজার ভেন্টিলেটর শনিবার নিউইয়র্ক শহরের জেএফকে বিমানবন্দরে এসে পৌঁছবে বলে কুমো ঘোষণা করেছেন। গত ২৭ মার্চ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের টোলিফোন আলাপের ফলাফল এ ভেন্টিলেটরের চালান বলে আলাপের বিষয়ে জ্ঞাত এক মার্কিন কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানিয়েছেন।

অপরদিকে যুক্তরাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে চার হাজার ৩১৩ জন হয়েছে। তবে স্পেনে পরপর টানা দুই দিন মৃতের সংখ্যা কমেছে।

লাদাখে চীনা যুদ্ধ সরঞ্জাম বৃদ্ধি

image

করোনার চিকিৎসায় ম্যালেরিয়ার ওষুধ বন্ধ : ডব্লিউএইচও

image

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু প্রায় ১ লাখ

image

লকডাউন দ্রুত তোলায় মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের শঙ্কা

image

ট্রাম্পের গেমচেঞ্জার ওষুধ ব্যবহারে ডব্লিউএইচও-এর নিষেধাজ্ঞা

image

করাচিতে বিধ্বস্ত বিমানের ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার

পাকিস্তানের করাচিতে বিধ্বস্ত বিমানের ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে এই ডাটা রেকর্ডার উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানায় পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স

ঈদে দেশব্যাপী লকডাউন চলছে তুরস্কে

image

দক্ষিণ সুদানের ১০ মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত

image

করোনার ৬ ভ্যাকসিন গণহারে পরীক্ষা করছে যুক্তরাষ্ট্র

image