সোনা ভেনেজুয়েলার, মাদুরোকে নিতে বাধা দিলো ইংল্যান্ডের আদালত

image

ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরো চেয়েছিলেন যুক্তরাজ্যের কেন্দ্রীয় ব্যাংক - ব্যাংক অব ইংল্যান্ডে তার দেশের যে ১০০ কোটি ডলারের সোনা রাখা আছে তা ভাঙ্গিয়ে তার জনগণের জন্য কোভিড মোকাবেলার ওষুধ সরঞ্জামাদি কিনবেন।

কিন্তু যুক্তরাজ্যের আদালত তাতে বাধ সেধেছে, জানিয়েছে সিএনএন।

যুক্তরাজ্য হুয়ান গাইদোকে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। তাই নিকোলা মাদুরো এই সোনা ভাঙাতে পারবেন না বলে আদেশ দিয়েছে যুক্তরাজ্যের আদালত।

২০১৮ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে রাষ্ট্রপতি হিসেবে আসীন হন নিকোলা মাদুরো। কিন্তু সেই নির্বাচনকে প্রহসনমূলক বলেছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি দেশ গাইদোকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

লন্ডনে যুক্তরাজ্যের উচ্চ আদালতের বিচারক এ বিষয়ে রায় দিতে গিয়ে বলেন, গাইদো সন্দেহাতীতভাবে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট।

গাইদোর প্রতিনিধি ভেনেসা নিউম্যান এই রায়কে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এই রায় ভেনেজুয়েলার জনগণের বিজয়।

তিনি বলেন, সোনা যেখানে ছিলো সেখানেই আছে। মাদুরো তা সরাতে চেয়েছিল। কিন্তু আমরা তা জনগণের জন্য রক্ষা করতে পেরেছি।

ভেনেজুয়েলার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তারা এই রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করবেন। মাদুরোর আইনজীবী সারোশ জাইওয়ালা এই রায়ে অসন্তুষ্ট।

তিনি বলেন, বাস্তব পরিস্থিতি আমলে না নিয়ে আন্তর্জাতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ এরকম একটি মামলার রায়ে এমন সিদ্ধান্ত দেওয়ার ঘটনা বিরল।

এর আগে ২০১৮ সালেও একইভাবে ভেনেজুয়েলা সরকারকে আটকে দিয়েছিল যুক্তরাজ্যের কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

যুক্তরাজ্যের কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বিভিন্ন দেশের এরকম প্রায় ২৫ হাজার কোটি ডলারের সোনা সংরক্ষিত রয়েছে।