তারা ‘পরের মেয়ে’র

image

নতুন বছরের শুরুতে গুণী নাট্যনির্মাতা হাবীব শাকিল নতুন একটি ধারাবাহিক নাটক নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন। নাটকের নাম ‘পরের মেয়ে’। এটি রচনা করেছেন সৈয়দ জিয়া উদ্দিন। ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইটের ব্যানারে নাটকটি প্রযোজনা করছেন কাজী রিটন। আগামী ১৩ জানুয়ারি থেকে দীর্ঘ এ ধারাবাহিকটি এনটিভিতে প্রচার শুরু হবে। নাটকটিতে চারটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন-দিলারা জামান, ইলোরা গহর, ইন্তেখাব দিনার ও সাদিয়া জাহান প্রভা। নাটকে দিলারা জামানের ছেলের চরিত্রে অভিনয় করছেন দিনার, তার সহধর্মিণীর চরিত্রে অভিনয় করছেন প্রভা এবং প্রভার মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন ইলোরা গহর। রাজধানীর উত্তরার একটি শুটিং হাউজে নাটকটির দৃশ্য ধারনের কাজ চলছে। নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে দিলারা জামান বলেন, ‘একটি পারিবারিক গল্পের নাটক এটি। সংসারে নানা টানাপড়েনের গল্প উঠে এসেছে এখানে। অনেকদিন পর পুরোপুরি পারিবারিক গল্পের একটি নাটকে কাজ করে ভীষণ ভালো লাগছে।’ ইলোরা গহর বলেন, ‘অসুস্থতার কারণে বেশকিছু দিন অভিনয়

থেকে দূরে ছিলাম আমি। কিন্তু ডাক্তার বলেছেন সুস্থ থাকতে হলে অভিনয়টা নিয়মিত করে যাওয়া উচিত। তাই এই নাটকে কাজ করছি। এখানে আমি একজন অবুঝ কিন্তু ভীষণ মানবিক একজন মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছি। হাবীব শাকিলের পরিচালনায় কাজটি ভীষণ উপভোগ করছি।’ ইন্তেখাব দিনার বলেন, ‘হাবীব শাকিলের নির্দেশনায় এবারই আমার প্রথম কাজ করা। গল্পটা ভীষণ সুন্দর। যে কারণে কাজ করতেও বেশ ভালো লাগছে। আমি সব সময়ই গল্প প্রধান কাজ করতে ভালোবাসি। নাটকে সহশিল্পী হিসেবে যারা আছেন তারা প্রত্যেকেই আমার ভীষণ প্রিয়। আমি খুব আশাবাদী এই নাটকটি নিয়ে।’ প্রভা বলেন, ‘এর আগে হাবীব শাকিলের নির্দেশনায় চারটি খ- নাটকে কাজ করেছি। অনেক যত্ন নিয়ে তিনি নাটক নির্মাণ করেন। এ নাটকে আমার চরিত্রটি ভীষণ চ্যালেঞ্জিংও বটে। যে কারণে সর্বোচ্চ মনোযোগ দিয়ে কাজটি করতে হচ্ছে। আর অনেকদিন পর মনের মতো একটি পারিবারিক গল্পের নাটকে কাজ করার সুযোগ পেলাম। যে কারণে কাজটি করতেও ভীষণ ভালো লাগছে।’

সংবাদপত্র শিল্পের জন্য কিছুই নেই বাজেটে

image

করোনা যুদ্ধে জয়ী সাংবাদিক জাহাঙ্গীরকে ফুলেল শুভেচ্ছা

image

করোনায় সংকটে পড়া সাংবাদিকদের জন্য সহায়তার ঘোষণা দিলেন তথ্যমন্ত্রী

image

৭০ বছরে ‘সংবাদ’

image

আবুল কালাম আজাদ মারা গেছেন

image

ক্র্যাবের উদ্যোগে সাংবাদিকদের করোনা শনাক্তে নমুনা সংগ্রহ

image

করোনায় মৃত সংবাদকর্মীদের জন্য ৫০ লাখ ক্ষতিপূরণ দাবি

করোনায় মারা যাওয়া সাংবাদিকদের পরিবারের জন্য ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চাওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন( বিএফইউযে)

সাংবাদিকদের করোনা সংক্রমন পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের জন্য বুথ স্থাপন

সাংবাদিকদের করোনাভাইরাস সংক্রমন পরীক্ষার নমুনা (স্যাম্পল) সংগ্রহের জন্য ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) একটি বুথ স্থাপন করা হয়েছে।

হোমনায় নারী সাংবাদিক সোনিয়ার খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

image