সাগর-রুনি হত্যার বিচারের দাবিতে ১৫ মার্চ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও

image

সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যাকাণ্ডের দ্রুত তদন্ত এবং বিচারের দাবিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাওয়ের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে সাংবাদিক নেতারা। মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) চত্বরে এক বিক্ষোভ সমাবেশে সংগঠনের সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ বলেন, ১৫ মার্চ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালন করে স্মারকলিপি দেওয়া হবে। ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের ভাড়া বাসায় খুন হন মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সরওয়ার এবং এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনি। দুইজনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। ওই রাতে তারা ছাড়া ঘরে ছিল তাদের একমাত্র শিশু সন্তান।

হত্যাকাণ্ডের পরপরই কারণ অনুসন্ধান করে খুনিদের শাস্তি দিতে সে সময়ের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন সময় নিয়েছিলেন ৪৮ ঘণ্টা। কিন্তু ৮ বছরে কয়েকদফা তদন্ত কর্মকর্তা বদলেও কোনো আলোর দেখা মেলেনি। গত সোমবার ৭১ বারের মতো মামলার তদন্ত প্রতিবেদন পিছিয়ে যায়। ২৩ মার্চ প্রতিবেদন জমার নতুন তারিখ রেখেছে আদালত। মঙ্গলবারের সমাবেশে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন বলেন,আর অপেক্ষা করতে চাইনা। মুজিববর্ষে যেন এ হত্যাকান্ডের বিচারকার্য শেষ হয়। তিনি হত্যাকান্ডের দ্রুত বিচারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সাংবাদিক নেতা খায়রুজ্জামান কামাল এই হত্যাকান্ডের তদন্তভার র‌্যাবের হাত থেকে পিবিআইকে দেওয়ার দাবি জানান।