অগ্নিকান্ডের ক্ষতি কমাতে বিএনবিসি-২০১৭ কোড বাস্তবায়নের দাবি বিশেষজ্ঞদের

image

অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ক্ষতির পরিমান কমিয়ে আনতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে বিএনবিসি-২০১৭ কোড বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, এটি বাস্তাবায়িত হলে দেশে বড় ধরণের আর কোন ক্ষতি হবে না। বনানীর এফআর টাওয়ারের মত আর কোন অগ্নিকান্ডের ঘটনাও ঘটবে না।

সোমবার (১৭ জুন) ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)-এর পুরকৌশল বিভাগের উদ্যোগে আইইবি’র সেমিনার কক্ষে ‘সেসমিক ডিজাইন বাই এএসসিই ৭-০৫ (দি বেসিস অব সেসমিক ডিজাইন বাই বিএনবিসি-২০১৭)‘ শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এই দাবি জানান।

সেমিনারে প্রধান অতিথি উপস্থিত ছিলেন আইইবি’র প্রেসিডেন্ট ও আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এস.কে ঘোষ এসোসিয়েশন অব আইসিসি (ইন্টারনেশনাল কোড কাউন্সিল) প্রেসিডেন্ট এস.কে ঘোষ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইইবি’র ম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ। এছাড়া বুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী রাকিব আহসান ও ইউআরপি:রাজউক প্যাকেজ এস-৭ টিম লিডার (আরটিআই ইন্টারন্যাশনাল) এরিক মুসেট বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে আইইবি’র পুরকৌশল বিভাগের সম্পাদক প্রকৌশলী শেখ তাজুল ইসলাম তুহিনের সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন আইইবি’র পুরকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. হাবিবুর রহমান।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ ভূমিকম্প প্রবন দেশ। ঢাকা শহর সহ সারা দেকেন বিভিন্ন ধরণের বিল্ডিং তৈরী হচ্ছে। সকল এলাকার বিল্ডিংকে ভূমিকম্পের ঝূঁকি হতে নিরাপদ রাখতে ডিজাইনের সময়ই স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারগণকে অবশ্যই ভূমিকা রাখতে হবে আইইবি ইতিমধ্যেই সকল পৌরসভা, সিটি কর্পোরেশনে আইইবি’র পক্ষে প্রকৌশলীদেও রাখার প্রস্তাব করেছে। যারা সাবাই বিএনবিসি এর সিসমিক ডিজাইন অনুসরন করে বিল্ডং ডিজাইন অনুমোদন দিবে। এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করা হবে।