নিত্যপণ্যের কৃত্রিম সঙ্কটকারীদের ধরতে চলছে বিশেষ অভিযান

image

নভেল করোনাভাইরাস আতঙ্কে নিত্যপণ্যের বিক্রি বেড়েছে। এ সুযোগে অনেক অসাধু ব্যবসায়ী বাড়িয়ে দিচ্ছেন নিত্যপণ্যের দাম, করছেন মজুত। নিত্যপণ্যের কৃত্রিম সঙ্কটকারীদের ধরতে বিশেষ অভিযানে নেমেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। ৭টি টিমে বিভক্ত হয়ে রাজধানীর বিভিন্ন পাইকারি ও খুচরা বাজারে অভিযান চালাচ্ছে সংস্থাটি। অভিযানে ব্যবসায়ী ও ভোক্তাদের সতর্ক করা হচ্ছে। পাশাপাশি আইন অমান্য করায় বেশকিছু প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে।

এবিষয়ে ভোক্তা অধিদফতরের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, করোনাভাইরাস একটি বিশ্বব্যাপী মহামারি, এটি পুঁজি করে যেন কেউ বাড়তি মুনাফা না লুটে এজন্য বুধবার (১৮ মার্চ) রাজধানীর বাজারে বিশেষ অভিযান চালানো হচ্ছে। অধিদফতরের ৭টি টিম কারওয়ান বাজার, নিউমার্কেট, হাতিরপুল, উত্তরা, পুরান ঢাকা, পাইকারি বাজার মালিবাগ, রামপুরাসহ বিভিন্ন এলাকায় দিনব্যাপী এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে আমরা ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষকে সতর্ক করছি যে তারা যেন চাহিদার অতিরিক্ত পণ্য না কেনেন। বিক্রেতারা যেন মূল্য বেশি না নেন এবং কেউ বেশি পণ্য কিনতে চাইলে তাদের যেন নিষেধ করে এ বিষয়ে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে যারা মজুত করছেন তাদের সতর্কতার পাশাপাশি আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

পণ্যের মূল্যতালিকা না টাঙানো ও দাম বেশি নেয়ার অপরাধে এ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে। উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সরকারের পক্ষ থেকে জনসমাগম এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এছাড়া দেশের সব স্থানে চলমান ও অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বাণিজ্য মেলা বন্ধ ঘোষণা করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের অফিসে না এসে ঘরে বসেই কাজ করতে নির্দেশনা দিচ্ছে। তাই শপিংমল কিংবা দোকানপাট কখন যে বন্ধ হয়ে যায়, সে আশঙ্কায় নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য ও অন্যান্য দ্রব্য বেশি পরিমাণে কিনে বাসায় মজুত করতে শুরু করেছে জনগণ। এতে রাজধানীর কাঁচাবাজারসহ সুপার শপগুলোতে কেনাকাটার হিড়িক পড়েছে। এ সুযোগে চালের দামও কিছুটা বাড়িয়ে দিয়েছেন বিক্রেতারা।