প্লাষ্টিক পন্যের জন্য হুমকির মুখে জলজপ্রানী : হাবিবুন নাহার

image

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার বলেছেন, সব জলজ প্রাণী আজকে হুমকির মুখে পড়েছে প্লাস্টিক পণ্যের জন্য। যেখানে সেখানে প্লাস্টিক পণ্য ফেলার কারণে জলজ প্রাণী বিপদের সম্মুখিন হচ্ছে। যা আমাদের পরিবেশকে চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করছে। ১১ মে শনিাবর জাতীয় প্রেসক্লাবে বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস ২০১৯ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- বন সংরক্ষক জহির উদ্দিন আহমেদ, পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সচিব আবদল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরী, প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মুকিত মজুমদার বাবু, বাংলাদেশ প্রাণিবিজ্ঞান সমিতির চেয়ারম্যান ড. গুলসান আরা লতিফা প্রমুখ।

বেগম হাবিবুন নাহার বলেন, পৃথিবীর অনেক দেশ আছে যেখানে বনভূমি ছিল কিন্তু এখন তার চিহ্নমাত্র নেই। কেটে তা শেষ করে ফেলেছে। উন্নত দেশ হিসেবে নিজেদের জাহির করার জন্য এটা করেছে তারা। কিন্তু আমাদের প্রচুর বনভূমি আছে তা রক্ষা করতে হবে।

উপমন্ত্রী আরও বলেন, পানির বোতল, পলিথিন, চিপসের প্যাকেটসহ উড়ে বেড়ানো প্লাস্টিকগুলো আমাদের অনেক ক্ষতি করে। এই বিষয়গুলোতে যদি আমরা সচেতন হই তাহলে ৭৫ শতাংশ প্লাস্টিক বর্জ্য থেকে দূরে থাকতে পারবো এবং জলজ প্রাণীগুলোকে হুমকির হাত থেকে রক্ষা করতে পারবো।

তিনি বলেন, সমুদ্র এবং জলাশয় যদি প্লাস্টিক বর্জ্য দ্বারা দূষিত হয়ে যায়, তবে সেটাকে আহরণ করার মতো কোনও পরিকল্পনা আমাদের সরকার থেকে এখনও নেওয়া হয়নি। সুন্দরবনের যে পাশ দিয়ে জলযান চলাচল করে, আমি নিজে সেইসব জলযানে একটি করে কন্টেইনার দিয়ে এসেছি যাতে করে তারা প্লাস্টিকের বর্জ্যগুলো সেখানে রাখতে পারে।

প্রকৌশলীদের সুযোগ সুবিধা বাড়ানোয় বিদেশ মুখি হচ্ছেন না: প্রকৌশলী আবদুস সবুর

image

বাংলাদেশ নারী ক্ষমতায়নের প্রকৃষ্ট উদাহরণ : জাতিসংঘ সদরদপ্তরে স্পিকার

image

পাস্তুরিত দুধে অতিমাত্রায় সিসার উপস্থিতি উল্লেখ করে হাইকোর্টে প্রতিবেদন

image

রংপুর ঈদগাহ মাঠে হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের শেষ জানাজা অনুষ্ঠিত হবে

image

২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া রোধে কার্যকর পদক্ষেপের নির্দেশ

image

ডিসিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

image

এরশাদের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ

image

পার্লামেন্টারি ফোরামের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে নিউইয়র্ক গেলেন স্পিকার

image

ইসলামী পর্যটনকে বিকশিত করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

image