বাড়ছে মশা বাড়ছে মৃতের সংখ্যা নেই কোন কার্যকর উদ্যোগ

image

দেশে অ্যাডিস মশার ছড়াছড়িতে ডেঙ্গুজ্বর মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ে মানুষের মৃত্যু বাড়লেও মশক নিবারনী দফতরের কর্তাব্যক্তিরা নাকে তেল দিয়ে গুমাচ্ছেন। মশক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মশা মারার ওষুধের ড্রামগুলো খালি পড়ে আছে গত কয়েক বছর ধরে। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কেউ কর্তব্যস্থলে দায়িত্ব পালন না করেই মাসে মাসে বেতন-ভাতা তুলছে। মশা নিবারন দফতরকেই অ্যাডিস মশার উৎপন্নস্থল হিসেবে দেখা গেছে।

অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন উত্তর সিটি করপোরেশন থেকে মশার ওষুধ ধার নিয়ে স্বল্প পরিসরে ছিটাচ্ছে। ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়লেও অ্যাডিস মশা নির্মূলে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ওষুধ ছিটানোর পরিমাণ বাড়েনি। বরং সল্প পরিসরে ওষুধ ছিটিয়ে ব্যাপক ওষুধ দেয়া হচ্ছে বলে প্রচার চালাচ্ছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) দুর্নীতি দমন কমিশনের এনফোর্সমেন্ট টিম অভিযান চালিয়ে এসব দৃশ্য দেখাতে পায়। হট লাইনে পাওয়া অভিযোগের ভিত্তিত্বে এ অভিযান চালায় দুদক।

দুদক সূত্র জানায়, মশক নিয়ন্ত্রণে দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন না করার অভিযোগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এবং মশক নিবারন দফতরে (লালবাগ, ঢাকেশ^রী মন্দির এলাকায়) একই টিমের মাধ্যমে দুইটি পৃথক অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। দুদক অভিযোগকেন্দ্রে (হটলাইন- ১০৬) আগত এক অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয় থেকে মঙ্গলবার এ অভিযান পরিচালিত হয়। দুদক টিম প্রথমে ঢাকা মশক নিবারনী দফতর এ অভিযান পরিচালনা করে। মশক নিবারনী দফতরের প্রধান কর্মকর্তাকে দফতরে অনুপস্থিত পাওয়া যায়। দফতরে মজুদকৃত মশা নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত ঔষধের ড্রাম খালি অবস্থায় পাওয়া যায়। যা অস্বাস্থ্যকর এবং মশার বিস্তারে সহায়ক প্রতীয়মান হয়। গোডাউনে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ এবং মশার অবাধ বিস্তারর ও বিচরণ লক্ষ্য করে দুদক টিম।

পরবর্তীতে টিম ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মশক নিধন কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করে। টিম জানতে পারে, মশা নিধনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন উত্তর সিটি করপোরেশনের নিকট হতে মশার ওষুধ ধার নিয়ে ব্যবহার করছে। দুদক টিম আরও লক্ষ্য করে, দেশব্যাপী ডেঙ্গুর প্রকোপ ভয়াবহ হারে বাড়লেও পূর্বে যে হারে ওষুধ ব্যবহার করা হতো সেই একই হারেই এখনও ওষুধ ব্যবহার করা হচ্ছে। এর প্রেক্ষিতে গত চার বছরে কী পরিমাণ মশার ওষুধ ক্রয় করা হয়েছে এবং সেগুলো কী হারে ব্যবহার করা হয়েছে তা আগামীকালের ভিতরে জানানোর জন্য ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনকে অনুরোধ করেছে অভিযান পরিচালনাকারী টিম।

কেন্দ্রীয় মশক নিবারন দফতরে গিয়ে দেখা গেছে মশক নিবারন দফতর এখন মশা উৎপাদনের দফতরে পরিণত হয়েছে। এখানকার কর্মকর্তারা গত ১ যুগেও কোন কাজ করেনি। কাজ না করে শুধু বসে বসেই বেতনভাতা গিলেছে। মশক নিবারন দফতরে গিয়ে দেখা যায়, দেশে অ্যাডিস মশা বেড়ে গিয়ে ডেঙ্গু মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়লেও তাদের কোন মাথাব্যাথা নেই। ডেঙ্গুতে প্রতিদিন মৃত্যুর ঘটনা ঘটলেও অ্যাডিস মশা নির্মূলে মশক নিবারন দফতরের কি করণীয় তা নিজেরাও জানে না।

দুদক সূত্র জানায়, বিভিন্ন মাধ্যমে অভিযোগ পাওয়া গেছে মশক নিবারনের জন্য ওষুধ না এনে বরাদ্ধ হওয়া অর্থ লুটপাট করেছে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এরসঙ্গে ঢাকা সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাসহ জনপ্রতিনিধিরাও জড়িত রয়েছে। এসব বিষয়ে ইতোমধ্যে অনুসন্ধান করছে দুদক।

শুধু গণমাধ্যমেই প্রকাশিত নারী-শিশু নিপীড়নের ঘটনায় সমাজ শঙ্কিত : প্রকৃত মাত্রা আরও ভয়াবহ

image

বিনামূল্যের পাঠ্যবই মুদ্রণে অনিয়ম ও প্রতারণা

image

৪৮ বছর পর সীমান্ত পিলারে পাকিস্তান মুছে বাংলাদেশ

image

পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে-প্রধানমন্ত্রী

image

জাতির পিতার চিন্তা ও উন্নয়নের সঙ্গে সংসদ সদস্যদের পরিচিত হতে হবে : স্পিকার

image

নারায়ণগঞ্জ-জয়দেবপুর রুটে ইলেকট্রিক ট্রেন চালু হচ্ছে : রেলপথমন্ত্রী

image

সংসদে শামিম কবিরসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব

image

জিয়া-এরশাদের শাসন আমল ছিল অবৈধ : প্রধানমন্ত্রী

image

নানা আয়োজনে শহীদ সোহরাওয়ার্দীর জন্মবার্ষিকী উদযাপন করেছে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ

image