মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর মিশ্র প্রতিক্রিয়ায় ‘মিড ডে মিল’

image

দেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীর জন্য দুপুরের খাবার ‘মিড ডে মিল’ প্রদানের সিদ্ধান্ত নিলেও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এই কার্যক্রম চালুর বিষয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। সব মাধ্যমিক বিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের জন্য দুপুরের খাবার চাচ্ছে না। আবার কোন কোন হাইস্কুল কর্তৃপক্ষ মধ্যাহ্ন ভোজের প্রয়োজনীয়তার কথা জানিয়েছেন। কয়েকজন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাও (ডিইও) মাউশি কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন, তাদের এলাকার প্রতিষ্ঠানে দুপুরের খাবারের প্রয়োজন নেই।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) থেকে গত ৩১ জুলাই ‘মিড-ডে মিল চালুকরণ সংক্রান্ত’ বিষয়ে সারাদেশের শিক্ষা কর্মকর্তা এবং প্রতিষ্ঠান প্রধানদের মতামত আহ্বান করা হয়। চিঠিতে বলা হয়, ‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষার্থীদের জন্য মিড-ডে মিল বা মধ্যাহ্ন ভোজের ব্যবস্থা থাকলে শিখন-শেখানো কার্যক্রম অধিকতর ফলপ্রসূ হয়। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সংশ্লিষ্ট জেলা শিক্ষা অফিসার তার জেলার যেসব স্কুলে মিড-ডে মিল চালু করতে আগ্রহী তার একটি তালিকা প্রস্তুত করবেন।’

মাউশি’র চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘যেসব স্কুল মিড-ডে মিল চালু করবে তাদের ন্যূনতম নিম্নবর্ণিত শর্ত পালন করতে হবে। সেগুলো হলো- কেবল আগ্রহী শিক্ষার্থীদের জন্য মিড-ডে মিলের ব্যবস্থা করা। কেবল আগ্রহী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রতি মিলের জন্য অনূর্ধ্ব ২০ টাকা গ্রহণ করা যাবে। স্বাস্থ্যসম্মত রান্নার জায়গার ব্যবস্থা থাকা এবং রান্না, বাজার ও পরিবেশন করার জন্য জনবলের ব্যবস্থা থাকা।’

এ ব্যাপারে মাউশি’র পরিচালক (মাধ্যমিক) অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান সংবাদকে বলেন, ‘দুপুরে খাবারের ব্যবস্থা থাকলে শিখন-শেখানো কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের মনোযোগ বৃদ্ধি পাবে। শ্রেণীকক্ষে উপস্থিতিও ভালো থাকে। এসব বিবেচনায় প্রথমে আগ্রহী বিশেষ করে পরীক্ষামূলকভাবে ৫/৭শ’ কিংবা এক হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মিড-ডে মিল কার্যক্রম চালু করা হবে।’

নিজেদের টাকায় শিক্ষার্থীরা স্কুলে দুপুরের খাবার খাবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তবে আমরা দেখতে চাচ্ছি সিঙ্গেল শিফটের কয়টি প্রতিষ্ঠান আগ্রহ দেখায়। সিঙ্গেল শিফটের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুপুরের খাবার প্রয়োজন। যদি সম্ভব হয়, তাহলে পর্যায়ক্রমে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চালু করার ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

পর্যায়ক্রমে সারাদেশে মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মিড-ডে মিল চালুর পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে ড. আবদুল মান্নান বলেন, ‘এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীরও নির্দেশনা রয়েছে। তিনি বলেছিলেন, সমাজের বিত্তশালী ব্যক্তিদের সহযোগিতায় স্কুলে দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করা যায় কিনা সেটা বিবেচনায় নেয়া।’

শেরপুর জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোকছেদুর রহমান গত ১৯ আগস্ট মাউশি’তে এক চিঠিতে জানিয়েছেন, ‘উপযুক্ত বিষয় ও সূত্রের প্রেক্ষিতে মহোদয়ের সদয় অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জানানো যাচ্ছে যে, অত্র জেলার কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মিড-ডে মিল বা মধ্যহ্ন ভোজের ব্যবস্থা গ্রহণে আগ্রহী নয়।’

যদিও মাউশি সিলেট অঞ্চলের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর কবীর আহাম্মদ গত ২৮ আগস্ট এক চিঠিতে মাউশি’কে জানিয়েছেন, এই অঞ্চলের অধীভুক্ত চার জেলার ২৪১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের জন্য মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন করতে আগ্রহী। এরমধ্যে মৌলভীবাজারের ৩২টি, হবিগঞ্জের ১০০টি, সিলেটের ৬৫টি এবং সুনামগঞ্জের ৪৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের জন্য মিড-ডে মিল চালুর উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

নেত্রকোনা জেলা শিক্ষা অফিস থেকে গত ২২ আগস্ট মাউশি’কে জানানো হয়েছে, জেলার ১০টি উপজেলার মধ্যে মাত্র জেলা সদরের খালিয়াজুরি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মিড-ডে মিল চালুর করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তবে নেত্রকোনা সদর, পূর্বধলা, বারহাট্রা, কলমাকান্দা, দূর্গাপুর, মদন, কেন্দুয়া, আটপাড়া ও মোহনগঞ্জ উপজেলার কোন প্রতিষ্ঠানের মিড-ডে মিল চালুর আগ্রহ নেই।

এদিকে স্কুলে এসে কোন শিক্ষার্থী যেন অভুক্ত না থাকে সেজন্য চলতি বছরের শুরুতে ১০৪টি উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য বিনামূল্যে মিড-ডে মিল চালু করে সরকার। পরবর্তীতে সম্প্রতি দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ কার্যক্রম চালুর সিন্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার। এ বিষয়ে মন্ত্রিসভা একটি নীতিমালাও অনুমোদন করেছে।

সংসদে শামিম কবিরসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব

image

জিয়া-এরশাদের শাসন আমল ছিল অবৈধ : প্রধানমন্ত্রী

image

নানা আয়োজনে শহীদ সোহরাওয়ার্দীর জন্মবার্ষিকী উদযাপন করেছে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ

image

খেলাধুলায় সম্পৃক্ততার মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মকে মাদক জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে দূরে রাখার আহ্বান তথ্যমন্ত্রীর

image

জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রথম অধিনায়ক শামিম কবিরের চেহলাম অনুষ্ঠিত

image

৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের জাতীয় পর্ব ৬ সেপ্টেম্বর

image

দীর্ঘ ৯ বছর বন্ধ থাকার পর প্রিপেইড মিটারে আবাসিক খাতে নতুন গ্যাস সংযোগ চালু হচ্ছে

image

অভিন্ন টেকসই সমুদ্র অর্থনৈতিক বেষ্টনী গড়ে তোলার আহ্বান : আইওরা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

image

বাসযোগ্য শহর হিসেবে ঢাকা একধাপ এগিয়েছে

image