শোলাকিয়ায় এবার চার স্তরের নিরাপত্তা

image

দেশের বৃহত্তম ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হচ্ছে কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে। এরই মধ্যে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে প্রশাসন। তবে নির্বিঘেœ ঈদের জামাত শেষ করতে নিরাপত্তা ব্যবস্থাতেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে প্রশাসন। ২০১৬ সালের ভয়ানক জঙ্গি হামলার বিষয়টি মাথায় রেখে নেয়া হচ্ছে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

ঈদের দিন যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এবার প্রথমবারের মতো চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। মুসল্লিদের নিরাপত্তায় সাদাপোশাকে ১ হাজার ২০০ পুলিশ, ১০০ র‌্যাব ছাড়াও মোতায়েন থাকছে ৫ প্লাটুন বিজিবি। ৩২টি নিরাপত্তা চৌকি ছাড়াও ২৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে থাকছে স্ট্রাইকিং ফোর্স। চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় পার হয়ে মুসল্লিদের প্রবেশ করতে হবে মাঠে। মাঠের চারপাশে বিভিন্ন গেটে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে দেহ তল্লাশি করা হবে। থাকবে পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরা। নামাজের সময় শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দান ও আশপাশের আকাশে নজরদারি করবে শক্তিশালী ড্রোন ক্যামেরা।

৩০ মে বৃহস্পতিবার শোলাকিয়া মাঠের প্রস্তুতি সরেজমিন দেখতে গিয়ে কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, মুসল্লিরা নিরাপদে ঈদগাহ মাঠে নামাজ পড়ে আবারও নিরাপদে যাতে বাড়ি ফিরে যেতে পারেন সে জন্য প্রয়োজনীয় সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। বহিরাগতদের নজরদারি করার জন্য এরই মধ্যে মাঠের আশপাশের বাসাবাড়িতে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। নিরাপত্তার স্বার্থে শোলাকিয়া মাঠে জায়নামাজ ছাড়া অন্য কিছু নিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন না মুসল্লিরা। এবার শোলাকিয়া ঈদগাহে ১৯২তম ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ২০১৬ সালের ৭ জুলাই ঈদুল ফিতরের দিন সকালে শোলাকিয়া ঈদগাহের কাছে পুলিশের একটি নিরাপত্তা চৌকিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। এতে দুই পুলিশ সদস্য, এক এলাকাবাসী ও এক হামলাকারী নিহত হয়।

বায়তুল মোকাররমে ঈদের ৫টি জামাত

image

প্রধানমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন

image

আগামীকাল পবিত্র ঈদুল ফিতর

image

শাওয়ালের চাঁদ দেখা যায়নি: ঈদ সোমবার

image

সন্ধ্যায় বসছে চাঁদ দেখা কমিটি

image

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি শান্তি পুরস্কার প্রাপ্তির ৪৭তম বার্ষিকী আজ

image

সৌদি আরবে ঈদ রোববার

image

পাঁচশ আইসিইউ ও অ্যানেসথেসিয়া ডাক্তার নিয়োগ দেয়া অপরিহার্য বাকী বিল্লাহ

বাংলাদেশ ক্রিটিক্যাল কেয়ার সোসাইটির সভাপতি প্রফেসর ডা. ইউএইচ শাহেরা খাতুন বেলা বলেন, আইসিইউতে যেখানে ডাক্তার দরকার

হু’র সুপারিশ অনুযায়ী ১ জন চিকিৎসকের বিপরীতে ৫ জন মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট নিয়োগের দাবি

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) সুপারিশ অনুযায়ী ১ জন চিকিৎসকের বিপরীতে