download

স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য নিয়ে রাজনীতির মাঠে আছে জাপা: জি এম কাদের

image

জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা ও জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে জাপা নির্বাচন করেছে। জাপা নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে সাহায্য করেছে, তেমনি আওয়ামী লীগও সাহায্য করেছে জাপাকে।তার মানে এ নয় যে, জাপা এখন আওয়ামী লীগ হয়ে গেছে। জাপা স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য নিয়ে রাজনীতির মাঠে আছে।

শনিবার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে জাপা ঢাকা মহানগর দক্ষিণের প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জি এম কাদের বলেন, জাপা এগিয়ে যাচ্ছে পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আদর্শ বাস্তবায়নে। এখনো দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের অগণিত ভক্ত-অনুরাগী ও জাপার সমর্থক রয়েছে।

তিনি বলেন, অনেকেই মনে করেন জাপা এখন আওয়ামী লীগ হয়ে গেছে। এটা তাদের ভুল ধারণা। জাপা যদি আওয়ামী লীগ হয়ে যায়, তাতে আওয়ামী লীগ ও জাপার শত্রুরা লাভবান হবে। তারা আমাদের ভোট নিতে চেষ্টা করবে।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ৯১ সালের পর থেকে যারা দেশ পরিচালনা করেছেন তার মধ্যে জাপার শাসনামলেই বেশি সুশাসন বিদ্যমান ছিল। যারা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে স্বৈরাচার বলেছেন, তারাই এখন বলছেন এরশাদ অপেক্ষাকৃত কম স্বৈরাচার ছিলেন। জাপার শাসনামলে তুলনামূলক কম দুর্নীতি ছিল বাংলাদেশে।

জাপার মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, দেশে নতুন নতুন ফ্লাইওভার ও পদ্মা সেতু দেখা যাচ্ছে কিন্তু মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দেখা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই। খুন, ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন নিত্যনৈমত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। দুর্নীতিতে দেশ ছেয়ে গেছে। দেশের মানুষ কথা বলতে পারছে না, মানুষের বাক স্বাধীনতা নেই। ভয়-ভীতি উপেক্ষা করেই দেশের মানুষের দুঃখ-কষ্টের কথা বলতে হবে।

প্রতিনিধি সভায় বক্তব্য রাখেন জাপার কো-চেয়ারম্যান ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, প্রেসিডিয়াম সদস্য জহিরুল ইসলাম জহির, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম রুবেল প্রমুখ।

হেফাজতের নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা চান আ ক ম মোজাম্মেল হক

image

সংসদ সদস্য এমিলি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

image

লড়াকু বাঙালির বিজয়গাথা ২ ডিসেম্বর ১৯৭১

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ শুরুর পর নবম মাসে এসে একে একে সাফল্য ধরা দিতে শুরু করে। বীরবিক্রমে মুক্তিযোদ্ধাদের লক্ষ্যঅর্জনের মাস হয়ে ওঠে

চুক্তি বাস্তবায়ন নিয়ে নানা মত : পাহাড়ে ফিরেনি শান্তি

পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন নিয়ে বিতর্কের শেষ হয়নি।এতো বছর পরও চুক্তি বাস্তবায়ন নিয়ে নানা মত। সরকার পক্ষ বলছে, চুক্তির

সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের সর্বত্র শান্তি বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর : প্রধানমন্ত্রী

image

বর্ষার আগেই খালগুলো দখলমুক্ত করার ঘোষণা ঢাকা দক্ষিণের মেয়রের

রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বলেছেন, আমরা ঢাকাবাসীকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দেয়ার জন্য স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি কার্যক্রম হাতে নিচ্ছি।

পাঠ‌্যক্রমে যুগোপযোগী পরিবর্তন আনছে সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

image

স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিজয় দিবস পালনের আহ্বান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিজয় দিবস পালনের আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

নিরাপদ ও ভ্রমণবান্ধব সড়ক নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা সরকারের অঙ্গীকার : কাদের

নিরাপদ ও ভ্রমণবান্ধব সড়ক নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা সরকারের অঙ্গীকার বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।