আ’লীগের কাউন্সিলে আমন্ত্রণ পাচ্ছেন না বিদেশি অতিথিরা

image

আওয়ামী লীগের আসন্ন (২১তম) জাতীয় কাউন্সিলে বিদেশি অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি। শনিবার (২ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সম্মেলন উপলক্ষে অভ্যর্থনা উপ-কমিটির এক সভায় তিনি এ তথ্য জানান।

অভ্যর্থনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম ও অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রিয়াজুল কবির কাওছার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সংসদ সদস্য ডা. হাবিবে মিল্লাত প্রমুখ।

অভ্যর্থনা উপ-কমিটির সদস্য সচিব ডা. দীপু মনি বলেন, আগামী বছর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে আমরা বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। সেসব কর্মসূচিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অতিথিরা আসবেন। কাজেই এবার সম্মেলনে বিদেশি কোন অতিথিকে আমরা আমন্ত্রণ জানাচ্ছি না। এজন্য এবারের সম্মেলনে আমাদের কাজের চাপ অনেক কম। আওয়ামী সমর্থিত বিভিন্ন পেশাজীবী ও সাংস্কৃতিক সংগঠনকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। তাদের সবার নাম-ঠিকানাসহ সর্বোপরি একটা পূর্ণাঙ্গ তালিকা করায় আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি। আমাদের মূল কাজটি আমাদের পুরো অতিথিদের তালিকা সঠিকভাবে করা।

দূর্নীতির কথা বিএনপির মুখে মানায় না : মোহাম্মদ নাসিম

‘দূর্নীতির কারণে আওয়ামী লীগ ধ্বংস হয়ে যাবে’ বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে মোহাম্মদ নাসিম বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা যখন ক্ষমতায় ছিলেন, তখন বাংলাদেশ তো ৫ বার দুর্নীতিতে চাম্পিয়ন হয়েছে। আপনাদের নেত্রী দুর্নীতির কারণে এখন জেলে। দুর্নীতি নিয়ে কথা আপনাদের মুখে মানায় না। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই একমাত্র নেত্রী যিনি নিজের দল থেকে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান শুরু করেছেন। অতীতে এই সাহস কেউ দেখাতে পারেনি। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তারা দুর্নীতিবাজদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিয়েছে।