ঢাকা-৫ আসনের কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি কম

image

ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি কম। সকাল ৯টা থেকে ভোট শুরু হলেও এক ঘণ্টায় একাধিক কেন্দ্রে এক থেকে দুই শতাংশ ভোট পড়েছে।

শনিবার (১৭ অক্টোবর) রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর ধলপুর কমিউনিটি সেন্টার, ডগাইর দারুচ্ছুন্নাত ফাযিল মাদ্রাসা, মেট্রোপলিটন ক্রিয়েটিভ স্কুল অ্যান্ড কলেজসহ একাধিক কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে এমন চিত্র।

এসব কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় ভোটারের উপস্থিতি একেবারেই কম। কেন্দ্রগুলোতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর নেতাকর্মীদের উপস্থিতি থাকলেও ভোটার সংখ্যা হাতেগোনা দু-চারজন।

মেট্রোপলিটন ক্রিয়েটিভ স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এক ঘণ্টায় ২৪০০ ভোটের মধ্যে ভোট পড়েছে মাত্র ৩৫টি।

মেট্রোপলিটন ক্রিয়েটিভ স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার মো. জসিমউদ্দিন বলেন, মেট্রোপলিটন ক্রিয়েটিভ স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে মোট ভোটার ২৪০০। এরমধ্যে এক ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ৩৫টি।

ডগাইর দারুচ্ছুন্নাত ফাযিল মাদ্রাসার প্রিজাইডিং অফিসার মো. মহসিন মোল্লা বলেন, আমার ১৪৮ নম্বর কেন্দ্রে মোট ভোটার ২৬২৫ জন। সকাল ১০টা পর্যন্ত এই কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ৪৫টি। ভোটার সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কিছুটা কম। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি বাড়বে।

সাংগঠনিক ব্যর্থতা ঢাকতে বিএনপি মিথ্যাচার করে : ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মানবিক কারণে বেগম জিয়া জামিনে মুক্ত আছেন।

রাজনীতির মাঠে শুধুই আ’লীগ : ধুঁকছে বিএনপিসহ অন্যান্য দল

image

নারায়ণগঞ্জে মান্নার অনুষ্ঠানে হামলা ও গাড়ি ভাঙচুর

image

বিএনপি জনরায়ের বিরুদ্ধে কর্মসূচি করছে : ওবায়দুল কাদের

image

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির মানববন্ধন

image

স্বৈরাচাররা ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করার জন্য ময়েজউদ্দিনকে হত্যা করেছে

image

আমরা মধ্যবর্তীর কথা বলিনি, ফ্রেশ নির্বাচন চায় বিএনপি

image

করোনাকালীন ঘটনাবহুল নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ছিল খুবই কম

ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে শনিবার (১৭ অক্টোবর) ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি ছিল খুবই কম।

সময় হলেই নির্বাচন : ওবায়দুল কাদের

সময় হলেই নির্বাচন হবে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘মধ্যবর্তী নির্বাচনের নামে মধ্যবর্তী টালবাহানার প্রয়োজন নেই। সময় হলেই নির্বাচন হবে, তখন জনগণই ঠিক করবে পরবর্তী সরকারে কে থাকবে।