ভোট কেন্দ্র ও নিজের নিরাপত্তা চাইলেন ফরিদগঞ্জের স্বতন্ত্রপ্রার্থী

image

আসন্ন পঞ্চম উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে নির্বাচনে নিজের, কর্মীদের ও ভোট কেন্দ্রের নিরাপত্তা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী, নির্বাচন কমিশন ও আইজিপির হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন একজন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী প্রার্থী। তার নাম তোফায়েল আহম্মেদ ভূঁইয়া। তিনি আগামী রোববার (২৪ মার্চ) অনুষ্ঠিতব্য চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলায় আনারস প্রতীকে নির্বাচন করছেন। ২০ মার্চ দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন মিলনতায়নে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই দাবি জানান। তিনি গুরুতরও আহত ও বাড়িতে অবরুদ্ধ থাকায় তার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তার ভাতিজা ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য আরিফ হোসেন।

লিখিত বক্তব্যে তোফায়েল আম্মেদ ভূঁইয়ার অভিযোগ প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট জাহিদুল আলম রোমান পরাজয় নিশ্চিত জেনে তাকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে বলেন। তিনি রাজী হলে রোমান ও তার সমর্থকরা গত ২৮ ফেব্রুয়ারি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে তোফায়েল আহম্মেদ ভ’ইয়ার প্রাণনাশের উদ্দেশ্যের হামলা করে বেদম মারধর করে। তার লাইসেন্স করার পিস্তল কেড়ে নেয়। তাকে মৃত ভেসে হামলাকারিরা চলে যাওয়ার পর স্থানীয় লোকজন তোফালেকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এবিষয়ে তিনি থানায় মামলা করতে গেলে থানা পুলিশ মামলা নেয়নি। তিনি কিছুটা সুস্থ্য হয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলে প্রতিপক্ষের লোকজন বাড়িতে কয়েক দফায় হাত বোমা হামলা করে। নির্বাচনী প্রচারণার জন্য মাইক নামালেই ভাংচুর করে এবং নির্বাচনী ক্যাম্প অফিসে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। কয়েক দিন থেকেই তোফায়েলকে প্রতিপক্ষের লোকজন বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। দূরর্বৃত্তরা সাধারণ ভোটারদেরকে ভোট কেন্দ্রে যেতে নিষেধ করছে। আনারস প্রতীকের সম্ভাব্য এজেন্টদেরকে কেন্দ্রে না যাওয়া ও এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিচ্ছে। যাতে তারা ভোট কেন্দ্র করে দখল করে সিল মারা ও এক তরফা নির্বাচন করতে পারে।

লিখিত বক্তব্যে আরও জানানো হয়, উপজেলার ১১৮টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৯৫টি কেন্দ্রই অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। এসব কেন্দ্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না নেয়া হলে ভোটের সময় মারাত্মক দাঙ্গা-হাঙ্গামা ও ব্যাপক প্রাণহানির আশঙ্কা রয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা কার্যকর করার জন্য ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় ও জেলা রিটানিং কর্মকর্তার কাছে দরখান্ত দেয়া হয়েছে। আমরা আশা করছি সিভিল ও পুলিশ প্রশাসন নিরপেক্ষ থেকে নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ তথা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করবেন। এবিষয়ে তোফায়েল আম্মেদ ভ’ঁইয়া প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি, চট্টগ্রামের রেঞ্জের ডিআইজি, চাঁদপুর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।