ভোটারদের আস্থা হারিয়ে বিএনপি বিদেশ নির্ভর : ওবায়দুল কাদের

image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি বিদেশিদের কাছে নালিশ করে প্রমাণ করেছে দেশের জনগণ ও ভোটারদের প্রতি তাদের কোনও আস্থা নেই। রাজনৈতিক ভাবে দেউলিয়া হয়ে দলটি এখন বিদেশিদের প্রতি নির্ভর হয়ে পড়ছে। সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

রাজনীতিতে অশালীন ভাষা পরিহার করা উচিৎ: সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, বলেন, রাজনীতিতে প্রতিপক্ষ থাকবে, মতান্তর থাকবে। কিন্তু সেটি কখনও যেন আক্রমণাত্মক না হয়। রাজনীতিরও একটি ভাষা আছে। অশালীন, অমার্জিত, আক্রমণাত্মক ভাষা পরিহার করা উচিত। ড. কামাল হোসেনের মতো একজন বিজ্ঞ মানুষ খেই হারিয়ে বলেন, ‘সরকারকে লাথি মেরে নামাতে হবে’। তার মুখে এ ধরনের ভাষা শোভন নয়।

রাজনীতিতে সৌজন্যবোধ হারিয়ে যাচ্ছে: ক্রিকেটারদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সব রাজনৈতিক দলকে আমান্ত্রণ জানানো হবে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, রাজনীতির ময়দানে অমঙ্গলীয় দেয়াল তুলে ফেলতে হবে। রাজনীতিতে সৌজন্যবোধ হারিয়ে যাচ্ছে। সবকিছুই যেন মানি না, মানবো না সংস্কৃতির দিকে যাচ্ছে। এই সংস্কৃতি থেকে বের হয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা অনুষ্ঠানে সব রাজনৈতিক দলকেই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। আমাদের আমন্ত্রণের সাড়া দিয়ে ড. কামাল হোসেন, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী উপস্থিত থাকলেও বিএনপির কেউ আসেনি। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো যখন মারা গেলো, সন্তান হারা মাকে সান্তনা দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গিয়েছিলেন। কিন্তু ঘরের দরজার তালা, গেটের তালা সব বন্ধ রাখা হয়েছিল।

অনূর্ধ্ব১৯ ক্রিকেট দলকে গণসংবর্ধনা: ওবায়দুল কাদের জানান, বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো বিশ্বচ্যাম্পিয়ান হওয়ায় জুনিয়র (অনূর্ধ্ব-১৯) ক্রিকেট দলকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গণসংবর্ধনা দেবে সরকার। তিনি বলেন, সোমবার প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে গণসংবর্ধনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ‘সময় ও তারিখ এখনও নির্ধারণ করা হয়নি, তবে সুবিধাজনক সময়ে এই সংবর্ধনা দেওয়া হবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশ স্বাধীনের পর ক্রিকেটে বাংলাদেশের এই বিশ্ব জয় একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। এটি একটি ঐতিহাসিক বিজয়। এজন্য বাংলাদেশ তরুণ দলকে অভিনন্দন জানাই। এই বিশ্ব জয় আমাদের প্রত্যাশা বাড়িয়ে দিয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি যে, এই জয়ের হাত ধরে বড়রাও একদিন বিশ্বকাপ জয় করবে।