চট্ট. আবাহনী ও বসুন্ধরা কোয়ার্টারে

image

মৌসুমের অন্যতম বড় বাজেটের দল চট্টগ্রাম আবাহনী ফেডারেশন কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে হারায়। এই জয়ে চট্টগ্রাম আবাহনীর পাশাপাশি বসুন্ধরারও কোয়ার্টার নিশ্চিত হয়েছে। ব্রাদার্স ইউনিয়ন দুই ম্যাচ হেরে বিদায় নিয়েছে। চট্টগ্রাম আবাহনী ও বসুন্ধরা উভয় দলের পয়েন্ট তিন। দুই দলের শেষ ম্যাচটি হবে ‘বি’ গ্রুপ সেরা নির্ধারণ হওয়ার। কোয়ার্টার ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ হবে ‘ডি’ গ্রুপ থেকে। চট্টগ্রাম আবাহনী দুই অর্ধে একটি করে গোল করে। ৩৪ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে রাকীব হোসেনের ক্রসে দারুণ প্লেসিং করেন ব্রাজিলিয়ান নিক্সন। বিরতির পর ব্রাদার্স ইউনিয়ন গোলের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। ৮৩ মিনিটে ম্যাথু চিন্ডের গোলে চট্টগ্রাম আবাহনীর জয় নিশ্চিত হয়।

টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিলেও ব্রাদার্সের কোচ মহিদুর রহমান মিরাজ সন্তুষ্ট, ‘আমরা মাত্র দশ দিনের অনুশীলনে দুই ম্যাচ খেললাম। লীগে আমরা ভালো খেলব আশা করি।’ চট্টগ্রাম আবাহনীর কোচ দেশের ফুটবলের অন্যতম সেরা কোচ মারুফুল হকের প্রতিক্রিয়া, ‘প্রথম ম্যাচে আমাদের লক্ষ্য ছিল কোয়ার্টার নিশ্চিত করা। এখন লক্ষ্য গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়া।’ রহমতগঞ্জ-শেখ জামাল ম্যাচ ড্র : বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত দিনের প্রথম ম্যাচে শেখ জামাল ও রহমতগঞ্জের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। প্রথম ম্যাচে সাইফ স্পোর্টিংকে রুখে দেয়া রহমতগঞ্জের সামনে সমীকরণটা ছিল এমন কোয়ার্টার ফাইনালের আশা টিকিয়ে রাখতে দ্বিতীয় ম্যাচে পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে হবে। নিজেদের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে তিনবারের ফেডারেশন কাপের শিরোপাজয়ী শেখ জামালকেও রুখে দিয়ে দিয়েছে পুরান ঢাকার দলটি। শেষ পর্যন্ত এক পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে সাঈদ গোলাম জিলানীর শিষ্যরা। দুই ড্রয়ে টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ থাকছে রহতমগঞ্জের। অন্যদিকে প্রায় আড়াই মাসের প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে নেমে প্রথম ম্যাচে হোঁচট খেলেও নক আউট পর্বে পা রাখার সুযোগ থাকছে শফিকুল ইসলাম মানিকের দল শেখ জামালেরও। এ জন্য অবশ্য পরের ম্যাচে তাদের হারাতে হবে সাইফকে। ম্যাচের ৬১ মিনিটে মিডফিল্ডার আরাফাতের শট কর্নারের বিনিময়ে ফিরিয়ে দেন জিয়া। সেই কর্নার থেকে গোল করে রহমতগঞ্জকে এগিয়ে দেন গিনির কামারা ইউনোসা (১-০)। পিছিয়ে পরে অবশ্য ম্যাচে ফিরতেও খুব দেরি করেনি শেখ জামাল। ৭২ মিনিটে বদলি হিসেবে নামা মোজাম্মেল হোসেইন নিরার পাস থেকে বল দারুণভাবে কাট করে বাঁ পায়ে বক্সের ভেতর থেকে জোরালো শটে বল মুহূর্তের মধ্যে জালে জড়ান নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার ওসাইগি মানডে (১-১)। আর কোন দল গোল না পাওয়ায় শেষ পর্যন্ত ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে দল দুটি। আজ খেলা নেই।