জুনের শুরুতে ক্রিকেট ফিরছে অস্ট্রেলিয়ায়

image

ফাইল ছবি

ফুটবলের পর ক্রিকেট। করোনাকে বৃদ্ধাঙুলি দেখিয়ে জার্মানিতে শনিবার থেকে শুরু জয়েছে বুন্দেসলিগা। এবার ফুটবলের দেখাদেখি মাঠে ফিরতে চলেছে ক্রিকেট। নিয়ম বদলে অস্ট্রেলিয়ার ক্লাব ক্রিকেট শুরু হতে যাচ্ছে জুনের প্রথম দিকে।

ডারউইন অ্যান্ড ডিস্ট্রিক্ট ক্রিকেট প্রতিযোগিতা শুরু হচ্ছে আগামী ৬ জুন থেকে। যা মূলতঃ একটি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। এর এক সপ্তাহ পর শুরু হবে ওয়ানডে টুর্নামেন্টও। ১৯ সেপ্টেম্বর হবে ফাইনাল।

বলে ঘাম বা থুতু ব্যবহার করা যাবে না, তা খেলোয়াড়দের জানিয়ে দিয়েছেন স্থানীয় টুর্নামেন্ট কর্তৃপক্ষ। মোমের সাহায্যে বলের উজ্জ্বলতা বজায় রাখা যায় কি না তা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করছে ডারউইন ক্রিকেট ম্যানেজমেন্ট গ্রুপ। সে ক্ষেত্রে আম্পায়ারদের নজরদারিতেই এটা করার নিয়ম করা হচ্ছে।

ডারউইনের ক্লাবগুলোকে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস থেকে বাচার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে। কারণ, সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনেই তবে মাঠে গড়াবে বল। স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে তা টুর্নামেন্ট শুরুর আগে নর্দার্ন টেরিটরি গভর্নমেন্টের কাছে জানাতে চাওয়া হয়েছে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও (সিএ) দেখছে খুঁটিনাটি সবগুলো দিক।

গত ১৩ মার্চ সর্বশেষ কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ওই ম্যাচে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে নিউজিল্যান্ডের সেই একদিনের ম্যাচ সিডনিতে হয়েছিল দর্শকহীন ফাঁকা গ্যালারিতে। এরপরই দুই দেশের বোর্ড করোনাভাইরাসের কারণে সিরিজের বাকি দুই ওয়ানডে বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়।

তখন থেকেই লকডাউনের কারণে ক্রিকেটাররা রয়েছেন নিজ নিজ বাড়িতে। শুধু অস্ট্রেলিয়াই নয়, বিশ্বজুড়েই এখন বন্ধ রয়েছে ক্রিকেট। ডারউইন অ্যান্ড ডিস্ট্রিক্ট ক্রিকেট প্রতিযোগিতা শুরুর সিদ্ধান্ত সে কারণেই সাড়া ফেলেছে। তবে ম্যাচগুলো ফাঁকা গ্যালারিতে নাকি ভরা গ্যালারিতে হবে, তা নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।