দুই টেস্টের প্রস্তাব, দল যাবে ২ অক্টোবর!

image

বাংলাদেশকে তিন টেস্টের পরিবর্তে দুইটি খেলার প্রস্তাব দিয়েছে ক্রিকেট শ্রীলঙ্কা। অক্টোবরে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সিরিজ চলে যাচ্ছে নভেম্বরে। ফলে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা যাওয়ার দিনও পিছিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বিশেষ সূত্র থেকে এমনটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে বিষয়গুলো নিয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন সুজনের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘এ মুহূর্তে কোনো কিছু চূড়ান্ত নয়। আমরা আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেব।’

কোয়ারেন্টাইন জটিলতা নিয়ে ধোঁয়াশায় বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা সিরিজ। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিন টেস্ট হওয়ার কথা ছিল অক্টোবর ও নভেম্বরে। বিসিবি ও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি) সিরিজের সূচি চূড়ান্ত করলেও সফরসূচি নিয়ে হচ্ছিল আলোচনা। শ্রীলঙ্কা সরকার ও কোভিড টাস্ক ফোর্সের নিয়ম অনুযায়ী সেই দেশে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক। এসএলসিও এ প্রস্তাব পাঠায় বিসিবিকে।

কিন্তু গত ১২ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার দেওয়া কঠোর কোয়ারেন্টাইন শর্তে সফরে যেতে অনীহা প্রকাশ করে বাংলাদেশ। এরপর এসএলসি দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, সেনাবাহিনী ও কোভিড টাস্কফোর্সের সঙ্গে কয়েক দফা বৈঠক করে। তবে সেসব আলোচনা ফলপ্রসূ না হওয়ায় টেস্ট সংখ্যা কমানোর প্রস্তাব দিয়েছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

বাংলাদেশের ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফদের কলম্বোতে পা রাখলেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক। প্রথম সাত দিন পুরোপুরি কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। পরের সাত দিন আইসোলেশনে থেকে শুরু করতে পাবে ট্রেনিং। পুরো প্রক্রিয়া হবে জৈব সুরক্ষা বলয়ে।

২৭ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা যাওয়ার কথা ছিল। নভেম্বরে সিরিজ চলে যাওয়ায় বাংলাদেশও দ্বীপরাষ্ট্রে যাওয়ার দিনক্ষণ পিছিয়ে দিয়েছে। জানা গেছে, ২ অক্টোবর বিমানে চড়বেন ক্রিকেটাররা। সেখানে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে শুরু হবে দুই সপ্তাহের প্রস্তুতি। এ সময়ে দুইটি তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সূচি হয়েছে। এরমধ্যে একটি খেলবে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের বিপক্ষে। এরপর নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে শুরু হবে টেস্ট।

কোয়ারেন্টাইন জটিলতায় লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ পিছিয়ে যাচ্ছে। দেশি ও বিদেশি ক্রিকেটার নিয়ে ছয় দলের টুর্নামেন্ট ১৫ নভেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর আয়োজন করার ইচ্ছে ছিল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের। কিন্তু বিদেশি খেলোয়াড়দের কোয়ারেন্টাইন জটিলতা, ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজি চূড়ান্ত না হওয়ায় বাধ্য হয়ে লিগ পিছিয়ে জানুয়ারিতে নিচ্ছে আয়োজকরা। ফলে নভেম্বরে বাংলাদেশকে আতিথেয়তা দিতে কোনো বাধা থাকল না শ্রীলঙ্কার।

প্রস্তাবিত সকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করছে দুই বোর্ড। আগামী সপ্তাহে দুই বোর্ড একসঙ্গে চূড়ান্ত ঘোষণা আসবে এমনটাই জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। এদিকে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের আইসোলেশন আরো এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। শুক্রবার করোনা পরীক্ষা করানোর কথা থাকলেও তা পিছিয়ে দেয়া হয়েছে।